শরীয়তপুরের ফাহাদ হোসেন তপু ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি নির্বাচিত

রুপক চক্রবর্তী শরীয়তপুর :
শিক্ষা, শান্তি, প্রগতির পতাকা বাহী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন শরীয়তপুরের ফাহাদ হোসেন তপু। সোমবার (১৩ই মে) বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদ এর সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী’র স্বাক্ষরিত এবং আওয়ামীলীগের সভানেত্রী, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমতিক্রমে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদ এর ৩০১ পূর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষনা করা হয়। উক্ত কমিটিতে ফাহাদ হোসেন তপু কে সহ-সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।

ফাহাদ হোসেন তপু কৈশোর কাল থেকেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে বুকে ধারন করে ছাত্র রাজনীতির সাথে জড়িত। তিনি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে অধ্যায়ন কালে শরীয়তপুর জেলা ছাত্রলীগের সর্ব কনিষ্ঠ সদস্য ছিলেন। এরপরে ফাহাদ হোসেন তপু যখন পড়াশুনার সুবাদে রাজধানী ঢাকায় অবস্থান করেন তখন তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক নির্বাচিত হয়। এরপরে তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার সহ সভাপতি নির্বাচিত হয় এবং তাহার উপর অর্পিত দায়িত্ব অত্যন্ত দক্ষতার সহিত পালন করেন।

ছাত্রনেতা ফাহাদ হোসেন তপু জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বিশ্বাসী এক বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক পরিবারের কনিষ্ঠ সন্তান। ফাহাদ হোসেন তপু, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য, শরীয়তপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি ইকবাল হোসেন অপুর ছোট ভাই। এছাড়াও তার চাচা মরহুম আলহাজ্ব সুলতান হোসেন মিয়া ছিলেন শরীয়তপুর জেলার একজন প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা। তপুর আরো দুই ভাই বিল্লাল হোসেন দিপু শরীয়তপুর সদর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং বিপ্লব হোসেন নিপু মিয়া জেলা যুবলীগ নেতা।

ফাহাদ হোসেন তপু বলেন, আমি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বিশ্বাসী একজন ছাত্রলীগের কর্মী। আমাকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদ এর সহ-সভাপতি নির্বাচিত করায় আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি এবং সাধারন সম্পাদক কে জানাই কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে যে দায়িত্ব অর্পন করেছে তা আমি সর্বদা সততার পথ অনুসরণ করে পালন করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত কে শক্তিশালী করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাবো।

উল্লেখ্য, এরআগে, গত বছরের ১১-১২ মে ছাত্রলীগের জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনের আড়াই মাস পর (৩১ জুলাই) সভাপতির পদে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক পদে গোলাম রাব্বানীর নাম ঘোষণা করা হয়।