ম্যাচে সেরা না হয়েও পুরস্কার পেলেন মাশরাফি

ত্রিদেশীয় সিরিজে নিজেদের প্রথম ম্যাচে দাপটে জিতেছে বাংলাদেশ। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে উড়িয়ে দিয়েও ম্যাচসেরার পুরস্কার পাননি বাংলাদেশের কোনো খেলোয়াড়।

শাই হোপ যে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি করে বসেছিলেন। ১০৯ রানের ইনিংস খেলা ক্যারিবীয়ান এই ওপেনার পরাজিত দলে থেকেও জিতে নিয়েছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার।

আসলে তার এটা প্রাপ্যও ছিল। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছেন হোপ। সেইসঙ্গে গড়েছেন আরও এক মাইলফলক। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে সবচেয়ে কম ইনিংসে ২০০০ ওয়ানডে রান করার কীর্তি দেখিয়েছেন তিনি।

এতদিন এই রেকর্ড ছিল স্যার ভিভ রিচার্ডসের। তিনি করেছিলেন ৪৮ ইনিংসে। মঙ্গলবার নিজের ৪৭তম ইনিংসেই ২০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন শাই হোপ।

হোপের হাতে তাই ম্যাচসেরার পুরস্কারটি উঠায় মন খারাপ হওয়ার কথা না বাংলাদেশের কারও। তবে ম্যাচসেরা না হলেও বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা ঠিকই জিতে নিয়েছেন একটি পুরস্কার, যেটির প্রাইজমানিও ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচের’ই সমান।

একটা সময় মনে হচ্ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান তিনশো পেরিয়ে যাবে। ৪১ তম ওভারে ২ উইকেটে ২০৫ রান তুলে ফেলেছিল তারা। সেখান থেকে ক্যারিবীয়দের দারুণভাবে আটকে দেন মাশরাফি।

শুধু বুদ্ধিদীপ্ত নেতৃত্বই নয়, বল হাতে সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিয়েছেন টাইগার অধিনায়ক। ৬ রানের ব্যবধানে সেঞ্চুরিয়ান শাই হোপসহ ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৩ ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দেন মাশরাফি। যেটি আসলে ম্যাচে অবস্থান নড়িয়ে দিয়েছিল ক্যারিবীয়দের।

এমন পারফরম্যান্সের পর মাশরাফি জিতেছেন ‘ফাউন্ডেশন অব দ্য ম্যাচ’ পুরস্কার। যেটির প্রাইজমানি ৫০০ ইউএস ডলার, ঠিক ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’-এর মতোই।