বনানী জাতীয় পার্টির অফিসে চুরি

জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা, সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের বনানী কার্যালয়ে তালা ভেঙে টাকা চুরির ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি করেছে জাতীয় পার্টি। বনানী থানা পুলিশ বলছে, চুরির বিষয়ে থানায় লিখিত কোনো অভিযোগ করা হয়নি, তবে পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে।

সোমবার (২৯ এপ্রিল) রাতে এ ঘটনা ঘটে বলে ব্রেকিংনিউজকে জানিয়েছেন এরশাদের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি খন্দকার দেলোয়ার জালালী।

তিনি জানান, বেতন ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানের জন্য অফিসে ৪৩ লাখ টাকা ছিল। দুর্বৃত্তরা চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলমের রুমের তালা ভেঙে টাকাগুলো নিয়ে গেছে। এছাড়া আরও তিনটি রুমের তালা ভাঙা হয়েছে।

খবর পেয়ে মঙ্গলবার ( ৩০ এপ্রিল) সকালে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসেছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হবে।

এ বিষয়ে বনানী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোকলেসুর রহমান বলেন, টাকা চুরির ব্যাপারে লিখিত কোনো অভিযোগ আমরা এখনো পাইনি। তবে সকালে মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা তদন্ত করে দেখছি।

প্রসঙ্গত, স্বাক্ষর জাল ও সম্পদের নিরাপত্তাহীনতার আশঙ্কায় গত ২৪ এপ্রিল বনানী থানায় সাধারণ ডায়েরি ( জিডি) করেছিলেন এরশাদ। জিডি নম্বর ১৫০২। এর ঘটনা তদন্তের দায়িত্ব পান বনানী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শায়হান ওয়ালীউল্লাহ।

জিডিতে উল্লেখ করা হয়, তার বর্তমান ও অবর্তমানে স্বাক্ষর নকল করে পার্টির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, দলের বিভিন্ন পদ-পদবি বাগিয়ে নেয়া, ব্যাংক হিসাব জালিয়াতি এবং পারিবারিক সম্পদ, দোকানপাঠ, ব্যবসা-বাণিজ্য হাতিয়ে নেয়া ও আত্মীয়-স্বজনদের জানমাল হুমকির মুখে রয়েছে। এ কারণে তিনি মনে করেন অসুস্থতার সুযোগ নিয়ে কেউ যেন এমন অপরাধ করতে না পারে, সে বিষয়ে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দরকার।

উল্লেখ্য, বনানীর ১৭/এ সড়কের ৭৫ নম্বর বাড়িতে জাতীয় পার্টির কার্যালয়টি। এখানে অফিস করেন এরশাদ।