ত্রিশালে ইউএনও,এসিল্যান্ডের নেতৃত্বে ভ্রম্যমান আদালতের অভিযান

এইচ. এম জোবায়ের হোসাইন :
পিয়াঁজের বাজারে সাম্প্রতিক অস্থিরতা নিরসনে ত্রিশালে বৃহস্পতিবার ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে বাজার মনিটরিং করা হয়। এসময় পাইকারি ও খুচরা বাজারে পিয়াজের দাম মানভেদে ৫৫-৭০ টাকা পাওয়া যায়। মোটামুটি সকল দোকানে হালনাগাদ মূল্য তালিকা পাওয়া যায়। সকল বিক্রেতাকে নির্দিষ্ট মুনফায় ব্যবসা পরিচালনা করতে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। গুজবের বশবর্তী হয়ে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি না করতে সকল ব্যবসায়ীদের সতর্ক করা হয়।
এসময় পণ্যের হালনাগাদ মূল্যের তালিকা না থাকায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমান আদালতে এক ব্যবসায়ীকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ অনুসারে ৫০০০ টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন।
সোনালী আঁশ “পাটের” ব্যবহার বৃদ্ধি এবং নির্ধারিত পণ্যে পাটজাত মোড়কের ব্যবহার নিশ্চিত করতে ত্রিশালের পৌর বাজারের মোদক পট্টি চালের দোকানে পাটের বদলে প্লাস্টিক এর বস্তায় চাল বিক্রির অভিযোগে দুইজন (০২) দোকান মালিককে “পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন, ২০১০ অনুসারে ২ টি মামলায় ১২,০০০ টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।
ভোক্তার স্বার্থ রক্ষায় বিভিন্ন মিষ্টির দোকানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় মিষ্টির ভারী প্যাকেট (প্রায় ২৫০ গ্রাম) ব্যবহার এর মাধ্যমে ভোক্তাকে ওজনে কম পণ্য দেয়ার অভিযোগে ২ জন মিষ্টি বিক্রেতাকে ২ টি মামলায় ৭ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।
সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে মোট ৫ টি মামলায় সর্বমোট ২৪,০০০/- অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। অভিযানে ত্রিশাল থানা পুলিশ সহায়তা প্রদান করেন।
জনস্বার্থে এবং ভোক্তাদের স্বার্থ রক্ষায় মোবাইল কোর্ট অব্যাহত থাকবে বলেও জানান সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ তরিকুল ইসলাম।