সৌদিতে দুই দফা ড্রোন হামলা চালানো হয়েছে

সৌদি আরবে দুই দফা ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহী গোষ্ঠী। শনিবার সৌদি জোটের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে যে, তারা দু’টি ড্রোন হামলা প্রতিহত করেছে এবং ওই ড্রোনগুলো ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে।

ইয়েমেন থেকে এসব হামলা চালানো হয়েছে বলে দাবি করেছে সৌদি জোট। বিস্ফোরক বোঝাই ড্রোন থেকে হামলা চালিয়েছে হুথি বিদ্রোহীরা। তবে এসব হামলা সম্পর্কে হুথিদের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

তবে নির্দিষ্ট লক্ষ্যে হামলা চালানোর আগেই এসব ড্রোন প্রতিহত করা হয়েছে বলে দাবি করেছে সৌদি। ২০১৪ সাল থেকেই সংঘাত-হামলায় বিধ্বস্ত ইয়েমেন।

সে সময় রাজধানী সানা দখলে নেয় হুথিরা। তখন দেশটির প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মনসুর আল হাদি হুথি বিদ্রোহীদের হামলা থেকে বাঁচতে পালিয়ে সৌদি আরবে আশ্রয় নেন। এরপর দেশের উত্তরাঞ্চলের বেশিরভাগই হুথিদের নিয়ন্ত্রণে চলে যায়।

পরের বছরের মাঝের দিকে ইয়েমেনের পলাতক এই প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতায় বসানোর লক্ষ্যে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ইয়েমেনে হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে বিমান হামলা শুরু করে।

সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের এই হামলা শুরুর পর থেকে দশ হাজারের বেশি ইয়েমেনির প্রাণহানি ও লাখ লাখ মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছেন। জাতিসংঘ বলছে, খাদ্য, বাসস্থান ও নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর মারাত্মক সঙ্কট তৈরি হওয়ায় ভয়াবহ দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছে ইয়েমেন।

গত মাসেও সৌদির দক্ষিণাঞ্চলের নাজরান প্রদেশে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহী গোষ্ঠী। ক্ষেপণাস্ত্রের পাশাপাশি বিস্ফোরক বোঝাই ড্রোনও নিক্ষেপ করেছে বিদ্রোহীরা। তবে লক্ষ্যে আঘাত হানার আগেই সৌদি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ধেয়ে আসা ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন ধ্বংসের করতে সক্ষম হয়েছে।
সূত্র : রয়টার্স