সুইডেন বাংলাদেশের গার্মেন্টসের কোনো ক্রয়াদেশ বাতিল করবেনা

সুইডেন বাংলাদেশের গার্মেন্টসের কোনো ক্রয়াদেশ বাতিল করবেনা।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব থাকলেও বাংলাদেশ তৈরি পোশাক খাতে (আরএমজি) বৈশ্বিক ক্রেতাদের ক্রয়াদেশ পূরণ করতে সক্ষম হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বুধবার (২৯ এপ্রিল) দুপুর দুইটার দিকে সুইডিস প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন লোফভেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে টেলিফোন করলে তিনি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। দুই নেতা প্রায় ১৫ মিনিট নানা বিষয়ে কথা বলেন। পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম দুই নেতার টেলিকথোপকথন সাংবাদিকদের অবহিত করেন।
প্রেস সচিব বলেন, ‘সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী বুধবার দুপুর দুইটার আশেপাশের সময়ে টেলিফোন করে শেখ হাসিনার সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। প্রায় ১৫ মিনিটের কথোপকথনে উভয় নেতা ব্যবসা-বাণিজ্য, বিশেষ করে তৈরি পোশাক খাত নিয়ে কথা বলেন।’ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা আশাবাদী, আমরা সুইডেনসহ অন্যান্য আন্তর্জাতিক ক্রেতাদের তৈরি পোশাক সংক্রান্ত ক্রয়াদেশ পূরণ করতে সক্ষম হবো। যদিও করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় বর্তমান অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।’
এ সময় সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেন যে, তার দেশ তৈরি পোশাক সম্পর্কিত বাংলাদেশের কোনও ক্রয়াদেশই বাতিল করবে না। স্টিফেন লোফভেন বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশ থেকে তৈরি পোশাক আমদানি অব্যাহত রাখবো।’ জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের মালিকরা স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে তাদের কারখানা চালু করেছেন।’
প্রেস সচিব আরও জানান, দুই দেশের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি উভয় নেতার আলোচনায় উঠে আসে। তারা করোনা মহামারি মোকাবিলায় দুই দেশের গৃহীত পদক্ষেপের প্রশংসা করেন। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোভিড-১৯ মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে একযোগে কাজ করার আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করেন।