সম্রাটের স্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রা‌টের স্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার ঢাকার মহানগর সি‌নিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কা‌য়েশ এই আদেশ দেন।

দুদকের উপপরিচালক জাহাঙ্গীর আলম ক্রোকের এই আবেদন করেন। দুদকের পক্ষে প্রসিকিউটর মোশারফ হোসেন কাজল শুনানি করেন।

আবেদনে বলা হয়, আসামি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট তার অবৈধ অর্থ দিয়ে স্ত্রী ও স্বার্থসংশ্লিষ্টদের নামে রাজধানীর মিরপুর এবং কাকরাইলে ওই ফ্ল্যাট কিনেন। যা মামলা তদন্তাধীন অবস্থায় ক্রোকাদেশ না দিয়ে বিক্রয়ের মাধ্যমে বেহাত হতে পারে। যাতে রাষ্ট্র ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

গত বছর ১২ নভেম্বর দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়, ঢাকা-১ এ দুদকের উপ-পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

মামলায় সম্রাটের বিরুদ্ধে দুই কোটি ৯৪ লাখ ৮০ হাজার ৮৭ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে আনা হয়। মামলাটিতে ওই বছর ১৭ নভেম্বর আদালত ছয় দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে।

অভিজাত জুয়া ক্যাসিনোর বিরুদ্ধে গত বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে অভিযান শুরু করে র‌্যাব। গ্রেপ্তার করা হয় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের তৎকালীন সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া ও কথিত যুবলীগ নেতা জিকে শামীমকে। অভিযানের প্রথম দিন থেকেই আলোচনায় আসেন ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট। এরপর ২৩ সেপ্টেম্বর অন্যদের সঙ্গে সম্রাটের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞার আদেশের পাশাপাশি ব্যাংক হিসাব তলব করা হয়। পরে ৬ অক্টোবর ভোরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন।