শিল্পকলা একাডেমির পরিচালক হলেন আফসানা মিমি

দেশের নন্দিত অভিনেত্রী আফসানা মিমি। নব্বই দশকের বহু বিজ্ঞাপন ও নাটক দিয়ে দর্শক মুগ্ধ করেছেন তিনি। সাফল্য পেয়েছেন পরিচালনাতেও।

মঞ্চ থেকে অভিনয়ে যাত্রা করা এই অভিনেত্রী বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরিচালক পদে দায়িত্ব পেয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আফসানা মিমি নিজেই।

তিনি জানান, ৩ বছর মেয়াদে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরিচালক পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে তাকে। গেল ১১ নভেম্বর তার সঙ্গে এই চুক্তি সম্পাদিত হয়েছে।

মিমি বলেন, ‘অনেক বড় দায়িত্ব। সঠিকভাবে যেন দায়িত্ব পালন করতে পারি সেই চেষ্টা অবশ্যই করবো। সেইসঙ্গে সবার সহযোগিতা চাই৷’

মিমির সঙ্গে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দা মাহবুবা করিমকেও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরিচালক নিয়োগ দিয়েছে সরকার। চুক্তিতে তিন বছরের জন্য এ দুইজনকে নিয়োগ দিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে আদেশ জারি করা হয়েছে। আদেশে বলা হয়েছে, অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের সঙ্গে কর্ম-সম্পর্ক পরিত্যাগের শর্তে যোগদানের তারিখ থেকে এই নিয়োগ কার্যকর হবে। এই চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের শর্তাবলী অনুমোদিত চুক্তিপত্র অনুযায়ী নির্ধারণ করতে হবে।

আফসানা মিমি হুমায়ুন আহমেদ রচিত ‘কোথাও কেউ নেই’ নাটক দিয়ে পরিচিতি লাভ করেন। এরপর অসংখ্য নাটকে তাকে দেখা গেছে। কাজ করেছেন চিত্রা নদীর পাড়ে’র মতো কালজয়ী সিনেমাতেও। তিনি উপস্থাপক হিসেবেও জনপ্রিয়তা পেয়েছেন।

গেল কয়েক বছর ধরে তিনি অভিনয়ের চেয়ে পরিচালনাতেই বেশি মনযোগী। বন্ধন, পৌঁষ ফাগুনের পালা তার পরিচালিত দর্শকপ্রিয় নাটক।

প্রসঙ্গত, শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব লিয়াকত আলী লাকী।