শরীয়তপুরে আইসোলেশনে মৃত্যু ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাসে অস্তিত্ব নেগেটিভ

রুপক চক্রবর্তী শরীয়তপুর :
শরীয়তপুরে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে মৃত ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ পাওয়া গেছে। পরীক্ষায় মৃত ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাসের কোনও অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন। রিপোর্ট পাওয়ার পর নড়িয়া উপজেলার চেরাগ আলী বেপারীর কান্দি এলাকার পাঁচটি বাড়ির লকডাউন অবস্থা তুলে নিয়েছে প্রশাসন।

জেলা সিভিল সার্জন এসএম আবদুল্লাহ মুরাদ বলেন, ‘শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট আইইডিসিআর এর কাছ থেকে আজ শুক্রবার (৪ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার সময় হাতে পেয়েছি। রিপোর্টে নেগেটিভ এসেছে। এর অর্থ ওই ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যায়নি, সম্ভবত যক্ষ্মা রোগের কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে।’

নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়ন্তী রূপা রায় বলেন, করোনা সন্দেহে মারা যাওয়া ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। বিষয়টি জানার পর ওই ব্যক্তির বাড়ি সংলগ্ন পাঁচটি পরিবারের ২৩ জন সদস্যের ওপর থেকে লকডাউন তুলে নেওয়া হয়েছে। তারা এখন জরুরি প্রয়োজনে বাড়ির বাইরে যেতে পারবেন।

উল্লেখ্য, ৩৫ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি গত ৩১ মার্চ মঙ্গলবার শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তিনি যক্ষ্মা রোগে আক্রান্ত হলেও শ্বাসকষ্ট থাকায় করোনা সন্দেহে তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছিল। মৃত্যুর পর বুধবার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কর্মীরা তাকে নড়িয়ায় পাঁচগাও গণকবরস্থানে দাফন করেন। দাফন করার সময় স্থানীয়রা বাধা দিলেও পুলিশের উপস্থিতিতে জানাজা শেষে তাকে সঠিকভাবে দাফন করা হয়।