রাস্তায় দুধ ফেলে খামারিদের অভিনব প্রতিবাদ

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :
লকডাউনের ফলে বেশ কিছুদিন ধরেই বাজারগুলোতে দুধের মূল্য কমে যাওয়ায় ন্যায্যমূল্যের দাবী জানিয়ে খামারিরা সকালে রাস্তায় দুধ ফেলে অভিনব প্রতিবাদ করেছে। ময়মনসিংহের ত্রিশালে সোমবার খামারীরা এ অভিননব প্রতিবাদ করে।
জানাযায়, কঠোর লকডাউনের ফলে কয়েকদিন যাবত ত্রিশালের বাজারগুলোতে দুধের মূল্য কমে যায়। প্রতি কেজি দুধ ৩০/৪০ টাকা কেজি দরেও তারা বিক্রি করতে পারছেন না। এতে ক্ষোভে অর্ধশত খামারি তাদের উৎপাদিতে প্রায় ১০০ লিটার দুধ ত্রিশাল বাজারের দুধ মহলের সামনে রাস্তায় ফেলে দেন। এ সময় খামারিরা সরকারি ব্যবস্থাপনায় মিল্কভিটার মাধ্যমে দুধ ক্রয়ের দাবি জানান।
খামারীরা জানান, ত্রিশালে ৩০০ থেকে ৪০০ গরুর খামার রয়েছে। এসব খামারের দুধ স্থানীয় হাট-বাজারগুলোতেই বিক্রি করা হয়ে থাকে। বাড়তি পুষ্টির চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি গোয়ালের কাছে প্রতিদিন ৪০/৫০ লিটার দুধ বিক্রি করেন একেকজন খামারি। কিন্তু কঠোর লকডাউনের কারনে বাজার মন্দা থাকায় গোয়াল না আসলে দুধ বিক্রয় করারমত তেমন ক্রেতাও পাওয়া যায় না। বিক্রি করতে না পেরে দুধ নিয়েও বাড়িতে ফিরতে হয় অনেকের।
খামার মালিক আব্দুল হাই বলেন, দুধের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছি না, আমরা এখন বিপাকে, তাই মনের কষ্টে দুধ রাস্তায় ফেলে দিয়েছি।
আরেক খামারি আব্দুর রহমান বলেন, এই কঠোর লকডাউনে অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি। গাভীর খাবারের দামও বেড়ে গেছে। কিন্তু দুধের দাম বাড়ছে না।
বাজার পরিচালনা কমিটির সাধারন সম্পাদক গোলাম মোস্তফা সরকার বলেন, লকডাউন ঘোষনার ফলে দুধের দাম কমে যায়। দুগ্ধ খামারীরা পড়েছে বিপাকে।