ময়মনসিংহ বিভাগের ৩ জেলাসহ ৫২ জেলায় হচ্ছে পানি পরীক্ষাগার

ময়মনসিংহ বিভাগের শেরপুর, জামালপুর, নেত্রকোনা এই ৩টি জেলাসহ ৫২ জেলায় পানির গুণগত মান পরীক্ষার জন্য ‘পানি পরীক্ষাগার’ স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।সরকারের নির্বাচনী অঙ্গীকার ছিল ‘সবার জন্য নিরাপদ পানি’। নিরাপদ পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে সবার জন্য নিরাপদ পানি নিশ্চিত হবে।

আড়াই শ’ কোটি টাকার বেশি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটির কাজ ২০২২ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নকারী সংস্থা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী সাইফুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।

নিরাপদ পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের আওতায় এসব পানি পরীক্ষাগার স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। গত বছরের ডিসেম্বরে প্রকল্পটির পূর্ণাঙ্গ অনুমোদন পায়। এই প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে আড়াইশ’ কোটি টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ৫২ জেলার মানুষ বিশুদ্ধ পানি পাবেন।

তাই পানি পরীক্ষাগার নেই এরূপ ৫২ জেলা সদরে ৫২টি নতুন পানি পরীক্ষাগার স্থাপন করা হচ্ছে। যে ৫২ জেলায় এই পরীক্ষাগার স্থাপন করা হবে এর মধ্যে রয়েছে ঢাকা বিভাগের জেলাগুলো হচ্ছে- নরসিংদী, শরীয়তপুর, নারায়ণগঞ্জ, টাঙ্গাইল, কিশোরগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, রাজবাড়ী, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর। চট্টগ্রাম বিভাগের জেলাগুলো হচ্ছে ফেনী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, খাগড়াছড়ি। ময়মনসিংহ বিভাগের ৩টি জেলা হচ্ছে শেরপুর, জামালপুর, নেত্রকোনা। বরিশাল বিভাগের ৫ জেলা হচ্ছে ঝালকাঠি, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, ভোলা, বরগুনা। রাজশাহী বিভাগের জেলাগুলো হচ্ছে সিরাজগঞ্জ, পাবনা, নাটোর, জয়পুরহাট, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নওগাঁ। সিলেট বিভাগের জেলাগুলো হচ্ছে মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ। খুলনা বিভাগের ৮ জেলা হচ্ছে যশোর, সাতক্ষীরা, মেহেরপুর, নড়াইল, চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া, মাগুরা, বাগেরহাট। রংপুর বিভাগের জেলাগুলো হচ্ছে পঞ্চগড়, দিনাজপুর, লালমনিরহাট, নীলফামারী, গাইবান্ধা, ঠাকুরগাঁও, কুড়িগ্রাম।