ময়মনসিংহ পুলিশের চোখ মানবতার খোঁজে, এবার সহায়তা পেল ক্ষৌরকর্মীরা

মাসুদ রানা, ময়মনসিংহ ১০ এপ্রিল :
করোনা ভাইরাস । একটি প্রকোপ। একটি মহামারি। শত কোটি মানব জীবনে নিয়ে এসেছে চরম দুর্যোগ। দূরে ঠেলে দিয়েছে একে অপররের কাছ থেকে। করেছে নিজ গৃহে পরবাসী। কিন্তু মানবতাকে করেছে আরও প্রখর। সুদৃঢ়। করোনা মোকাবেলায় প্রতিরোধ যুদ্ধে নেমেছে পুরো মানব জাতি। বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে দৈনন্দিন জীবন যাপন। এ যুদ্ধে ধীরে ধীরে পিছিয়ে পড়ছে কর্মজীবী কিছু মানুষ। ওরা আমাদেরই চারপাশে দিনকর্মে উপার্জন করে জীবন চালাতেন। ময়মনসিংহে এমন মানুষগুলোর পাশে দাড়িয়েছে জেলা পুলিশ। নিভৃতে খুঁজে ফিরছে পুলিশের মানবিক অনুসন্ধানী চোখগুলো। এবার দেড়শত কর্মহীন হয়ে পড়া ক্ষৌরকর্মীকে খাদ্য সহায়তা তুলে দিলেন ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ। ওরা গত এক মাসে নিজেদের পরিবার পরিজন নিয়ে চরম সংকট সময় পাড় করছিলো।

শুক্রবার (১০ এপ্রিল) দুপুরে জেলা পুলিশের কার্যালায়ে পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামান এর পক্ষ থেকে হাতে হাতে সহায়তা সমগ্রী তুলে দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ডিএসবি হুমায়ন কবির, জেলা গোয়েন্দা সংস্থার অফিসার ইনচার্জ শাহ কামাল আকন্দ।

করোনার সংক্রমন প্রতিহত করার পদক্ষেপে সবচাইতে বেশি সংকটময় মুহূর্ত পার করছে দরিদ্র ও খেটে খাওয়া এ মানুষগুলো। আর সে মানুষগুলোকেই খুঁজে খুঁজে খাদ্য সহায়তা প্রদান করছেন জেলা পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামান। বেদে সম্প্রদায়, ছিন্নমূল পথ মানুষ, এতিম শিক্ষার্থী, রিকসা চালক, কুলি শ্রমিক, এবার ক্ষৌরকারদের (নাপিত)হাতে তুলে দিলেন সহায়তা সামগ্রী। তিনি সমাজের এমন মানুষগুলোকে সনাক্ত করছেন যারা প্রকৃতপক্ষে এ দূর্যোগের শিকার হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করেছে।

ময়মনসিংহের পুলিশ বাহিনী জনগণকে নিরাপত্তা দেয়ার সাথে সাথে মানবিক দায়িত্বটাও পালন করছে নিজেদের অনুসন্ধানী চোখ রেখে। পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামানের উদ্যোগে প্রতিদিন সহায়তার নানা কার্যক্রম চলাচ্ছে জেলা গোয়েন্দা সংস্থা। যা ইতিমধ্যেই ময়মনসিংহবাসীকে উপলব্ধি করিয়েছে মানুষ মানুষের জন্য কতটা করা যেতে পারে মানবিক অনুভূতি দরজাটা খোলা থাকলে। শপথ একটাই জনতার পুলিশ তার জনতাকে খাদ্য সংকটে গুমরে কাঁদতে দিবেনা শেষ দিন পর্যন্ত।