ময়মনসিংহে শংকর সাহা একজন সফল মানুষের নাম

স্টাফ রিপোর্টারঃ ময়মনসিংহের সকলের কাছে তিনি একজন মৃদু ভাষী, জনদরদী ও বন্ধু পরায়ণ মানুষ হিসাবে পরিচিত । তিনি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শংকর সাহা। যিনি সর্বদা মানুষের দুর্দশায় সমব্যাথী । আদ্যপান্ত ভাল মানুষ । একাধারে তিনি বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ময়মনসিংহ জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক । এছাড়াও ময়মনসিংহ চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ড্রাস্ট্রি এর সহ সভাপতি, দোকান মালিক সমিতি ঐক্য পরিষদের সহ সভাপতি, দূর্গাবাড়ি ধর্মসভার সাধারণ সম্পাদক, নাগরিক আন্দোলনের পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক, রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির সদস্য ছাড়াও বিভিন্ন সংগঠনে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন। বঙ্গবন্ধু পরিষদের সদস্য হিসাবে তৃণমূল পর্যায়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে একজন পথিকৃত শংকর সাহা নিবেদিতপ্রাণ কর্মী ও প্রাতঃস্মরণীয় মানুষ। অতি সাধারণ জীবনযাপনে অভ্যস্ত জনদরদী, স্বল্পভাষী, বিনয়ী, রুচিশীল, দূরদর্শী এই নেতার গণমুখী টেকসই উন্নয়ন ও সেবামূলক কর্মকাণ্ড যার সাড়া মেলে সকল সময় । শংকর সাহার জন্ম ময়মনসিংহ শহরের মেছুয়া বাজারের ডাইলপট্রির এক সম্ভ্রান্ত হিন্দু ব্যবসায়ী পরিবারে। বাবা ছিলেন একজন সফল ব্যবসায়ী । ব্যবসায়ী সমাজে শংকর সাহা কেবল একজন ব্যক্তি নন,একটি প্রতিষ্ঠানের নাম বললেও কম বলা হবে, বলতে হবে- একটি বটগাছ। ব্যবসায়ী জগতের সফল পুরুষ ও প্রদর্শক এ মহান ব্যক্তি। এছাড়াও তিনি ভালবাসা অর্জন করেছেন সকল রাজনৈতিক দল- মত ব্যক্তিদের। শ্রদ্ধা অর্জন করেছেন আবাল বৃদ্ধ-বনিতাসহ ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি জয় করেছেন সাধারণ মানুষের মন। আস্থা ও বিশ্বাসের জায়গায় অবস্থান দৃঢ় করেছেন ময়মনসিংহের নাগরিক সমাজের । সফল ব্যবসায়ী, সফল উদ্যোক্তা, সংগঠক, আদর্শ পিতার আদর্শ সন্তান, অনুকরণীয়, বুদ্ধিদীপ্ত চৌকস সমাজ সংস্কারক, দেশপ্রেমিক, ভদ্র, বিনয়ী, সম্ভ্রান্ত এসব বিশেষণের সমন্বয় হচ্ছেন শংকর সাহা । তিনি ময়মনসিংহ অঞ্চলের ব্যবসায়ীদের জন্য অনুকরণীয় জীবন আদর্শ। আর ব্যক্তি শংকর সাহা এক অসাধারণ ব্যক্তিত্বের অধিকারী।
নির্লোভ এই মানুষটির মাঝে কখনই কোন অহংকারবোধ কারো চোখে না পড়লেও একটি স্বার্থান্বেষী মহলের আঁতে ঘা লাগায় তার বিরুদ্ধে মাঝে মধ্যে কুৎসা রটান । যদিও এসব নিয়ে কখনও কর্ণপাত করেননা শংকর সাহা । বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ , সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, জনপ্রতিনিধিদের সাথে তার অত্যন্ত হৃদ্যতা এবং সখ্যতা বিদ্যমান। ঠিক তেমনি ব্যবসায়ী সমাজের কাছে তিনি একজন আদর্শ ব্যবসায়ী ও পথ প্রদর্শক। যার সখ্যতা মাটি আর মানুষের সঙ্গে। সমাজসেবক ও দানবীর হিসেবেও তিনি সম পরিচিত । মানুষের সুখ- দুঃখে তার দরজা সকলের জন্যই খোলা । ময়মনসিংহ শহেেরর এমন কোন বয়সের লোকজন নেই-তার নাম জানেন না। অনুজদের সবাইকে দেখা হলে স্নেহ মমতা আর বড় অর্থাৎ সিনিয়রদের শ্রদ্ধার সাথে সম্বোধন করেন, তাদের খোঁজ নেন শংকর সাহা। প্রতিবেশী স্থানীয় জনগণের সঙ্গে তার রয়েছে চমৎকার আন্তরিকতার সেতুবন্ধন। কিশোর বয়স থেকেই কাজ করে চলেছেন ময়মনসিংহবাসীর কল্যাণে। আর ব্যবসা করেছেন, দেশের অর্থনীতির উন্নয়নে। ক্ষুদ্র পরিসরে হলেও অপরিসীম অবদান রেখে যাচ্ছেন কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে। যা ময়মনসিংহ তথা দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখছে প্রতিনিয়ত।

শংকর সাহা অসাম্প্রদায়িক চেতনার কর্মযোগী মানুষের পাশাপাশি একজন ধর্মীয়, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠক। তিনি নিজ শ্রম, মেধা ও অর্থায়নের মাধ্যমে সুহৃদদের সাথে নিয়ে অগণিত জনহিতকর কাজ করেছেন। করোনাকালে হতদরিদ্রদের পাশে দাড়িয়েছেন । ইতিপূর্বেও তিনি জনপ্রতিনিধিদেও সাথে দরিদ্র ছাত্র-ছাত্রী, শীতার্ত , ক্ষুধার্ত মানুষের পাশে দাড়িছেন । অগ্নিকাণ্ড কিংবা প্রাকৃতিক দুর্যোগে গৃহহীন মানুষের পরিধেয় বস্ত্র বাসস্থানের ব্যবস্থা ও খাদ্য ওষুধ সরবরাহ করাসহ রোগাক্রান্ত অসহায় দরিদ্রের চিকিৎসা সহায়তাও দানে জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে ব্যবস্থা করেছেন। ময়মনসিংহ ব্রহ্মপুত্র নদ রক্ষা আন্দোলন, বিভাগ বাস্তবায়ন, ময়মনসিংহের সার্বিক উন্নয়নসহ পরিবেশ ও জীববৈচিত্র রক্ষা আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত আছেন । জাতির জনক বঙ্গবন্ধু পরিষদেরও সদস্য হিসাবে সম্পৃক্ত । সকলের কাছেই তিনি সংস্কৃতিমনা, ধৈর্যশীল, স্থিরচিত্তের বন্ধুবৎসল মানুষ। এলাকার ভবিষ্যত্ প্রজন্মকে সংস্কৃতিসচেতন করার লক্ষ্যেও তিনি কাজ করে যাচ্ছেন । নিন্দুকদের নানান কুৎসার মাঝেও জীবনে কখনো তিনি কোনো অবস্থাতেই সঠিক সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেননা। সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠায় তিনি ময়মনসিংহে একজন অনুকরনীয় অনুসরণীয় মহানুভব ব্যক্তিত্ব। সদা কর্মযোগের তৎপরতা । মাটির মানুষ শংকর সাহা একজন নিবেদিতপ্রাণ, নির্লোভ একাগ্রচিত্ত এক ব্যক্তিত্ব। তিনি গরিবের বন্ধু। তিনি আপাদমস্তক একজন ভালো মানুষ । তিনি অসাম্প্রদায়িক ও জনদরদী মানুষ। তিনি অসম সাহসী। জনকল্যাণে কাজ করাই তার নেশা । সজ্জন জনদরদী এই মানুষটি সমাজ উন্নয়নে নিজেকে জড়িয়েছেন জ্ঞান হওয়ার পর থেকেই। বর্তমান তরুন প্রজন্মের কাছে তিনি এক মহীরুহে পরিণত হয়েছেন । নির্লোভ, নিরহঙ্কার শংকর সাহা সব সময় ধীর-স্থির, সংযত একজন মানুষ । তার ভাবনায় সদা সর্বদা একটাই, যা মানুষের কল্যাণ। তিনি তার সদালাপ ও আচরনের কারনে প্রতিপক্ষের কাছেও সম্মানিত। কোনো প্রলোভন বা প্রাপ্তির মোহ কখনো তাকে আচ্ছন্ন করেনি। কোনো হুমকি ও নির্যাতন তাকে আদর্শ থেকে এক চুলও বিচ্যুত করতে পারেনি। তার মত উদার, সৎ, প্রকৃত দেশপ্রেমিক হাতেগোনা । আদর্শ, সততা, মানুষের প্রতি গভীর অনুরাগ, নিষ্ঠা, আন্তরিকতা, মেধা, শ্রম, অনুশীলন, ধী-শক্তিসহ সকলগুণের সমাহার রয়েছে শংকর সাহার মাঝে।

ময়মনসিংহের তরুন প্রজন্মের কয়েকজন জানান, শংকর সাহা থেকে আমাদের বিশেষত তরুণ প্রজন্মের, অনেক কিছুই শেখার আছে। তিনি তাঁর চিন্তা ও কর্মের মাধ্যমে সমাজের জন্য যে অবদান রেখে চলেছেন। উন্নত ভবিষ্যৎ গড়ার জন্য যে সংগ্রাম ও আন্দোলনসমূহে নিজেকে যুক্ত রেখেছেন, আমাদের দায়িত্ব হবে সেই আন্দোলন ও সংগ্রামকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। তাহলেই আমরা শংকর সাহাকে যথাথথ মূল্যায়ন করতে পরবো । ময়মনসিংহবাসী শংকর সাহার সার্বিক কার্যক্রম অব্যাহত রাখার আহবান জানান ।