ময়মনসিংহে মোবাইলে গেম খেলতে নিষেধ করায় অভিমানে বিষপানে কলেজ শিক্ষার্থীর আত্নহত্যা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি :
ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে লেখাপড়া বাদ দিয়ে মোবাইলে গেম খেলতে নিষেধ করায় মায়ের সাথে অভিমান করে ফরিদ আহমেদ হৃদয় (১৯) এক কলেজ শিক্ষার্থী বিষপানে আত্মহত্যা করেছে।
নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বারবাড়িয়া ইউনিয়নের বাড়া ভাটি পাড়া গ্রামের চাঁন মিয়ার ছেলে ও গফরগাঁও সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী ফরিদ আহমেদ হৃদয় ভালুকা আত্মীয় বাড়ি থেকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে বসত ঘরে বসে মোবাইলে গেম খেলতে থাকে। এ সময় হৃদয়ের মা পড়ালেখা বাদ দিয়ে গেম খেলতে ছেলেকে নিষেধ করে বকাঝকা করেন। এতে অভিমান করে বিষপান করে হৃদয়।বিষের তীব্র গন্ধ পেয়ে বাড়ির লোকজন হৃদয়কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে হৃদয় মারা যায়। পরে লাশ বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়।
খবর পেয়ে গফরগাঁও থানার এসআই আনোয়ার হোসেন রাতে বাড়ি থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কজেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় হৃদয়ের পিতা চাঁন মিয়া রাতেই গফরগাঁও থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করেন।
গফরগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ অনুকুল সরকার বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।