ময়মনসিংহে প্রথম সন্তান জন্মের ৩৯ দিন পর আরেক সন্তান জন্ম

ময়মনসিংহে প্রথম সন্তান জন্মের ৩৯ দিন পর আরেক সন্তান জন্ম দিয়ে আলোচনায় এক মহিলা, চিকিৎসা বিজ্ঞানের জগতে এক বিরল ঘটনা।

ফারুক আহমেদ,ময়মনসিংহ :
ময়মনসিংহের শিলাঙ্গন হাসপাতালে ৩৯ দিন পর যমজ শিশু জন্ম দিয়ে আলোচনায় এক মহিলা। যা চিকিৎসা বিজ্ঞানের জগতে এক বিরল ঘটনা।
জানাযায়,গাজীপুর জেলার কাপাসিয়ার বর্মী এলাকার আমিনুল ইসলাম-রিতা আক্তার দম্পতি দীর্ঘদিন ধরে নিঃসন্তান। একটি সন্তান লাভের আশায় তারা সাড়ে তিন বছর ময়মনসিংহে প্রফেসর ডাঃ শিলা সেন এর চিকিৎসা গ্রহণ করেন। অবশেষে চিকিৎসা গ্রহণের পর রীতা গর্ভবতী হোন। আল্ট্রসনোগ্রাম রির্পোটে রীতার গর্ভে দুটি সন্তানের অস্তিত্ব ধরা পরে। এর পর গত ১৩ মে হঠাৎ করে রীতার মারাতœক পেটব্যথা শুরু হলে তাৎক্ষণিক তিনি ডা.শিলা সেনের সাথে যোগাযোগ করলে, রীতাকে চেম্বারে আসতে বলেন। রীতা আসার পর কালবিলম্ব না করে তাকে তাৎক্ষণিক শিলাঙ্গন হাসপাতালে ভর্তি করে লেবার ওটি তে পাঠানো হয়। প্রফেসর ডাঃ শিলা সেনের সার্বিক তত্ত¡াবধানে রীতা একটি কন্যা সন্তান প্রসব করেন। বাচ্চার ওজন কম থাকায় তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষনের পর সে সুস্থ্য হয়ে ওঠে। অন্যদিকে রীতার গর্ভের দ্বিতীয় বাচ্চাটি রীতার গর্ভেই থেকে যায়। রীতাও শারীরিক ভাবে সুস্থ বোধ করতে থাকলে ৭২ ঘন্টা পর প্রফেসর ডাঃ শিলা সেন পরবর্তী চিকিৎসার জন্য রীতাকে ময়মনসিংহের কমিউনিটি বেজড মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানেও রীতা সার্বক্ষণিক প্রফেসর ডাঃ শিলা সেন তত্ত¡াবধানে ছিলেন। অতঃপর গত ২৩ জুন মঙ্গলবার রীতার গর্ভস্থ দ্বিতীয় পূত্র সন্তানটি প্রসব করেন। প্রথম সন্তান প্রসবের একমাস দশদিন পর দ্বিতীয় সন্তান প্রসব চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় বিরল ঘটনা । সাধারণত যমজ বাচ্চার প্রসব কয়েক মিনিট বা এক, দুই ঘন্টার ব্যবধানে হয়ে থাকে। বর্তমানে দুই সন্তান ও তার মা সুস্থ্য আছেন।
শিলাঙ্গন হাসপাতালের প্রনব সেন জানান হাসপাতালটি জনসেবায় ইতোমধ্যে ব্যাপক সাফল্য কুড়িয়ে এনেছে। ডা.শিলা সেন একজন সিনিয়র গাইনি বিশেষজ্ঞ সার্জন হিসেবে নির্ভীকভাবে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। তার সেবার কারণে হাসপাতালটি সুপরিচিত লাভ করে সুনাম অর্জন করেছে। এ যাবত কাল পর্যন্ত ১০ হাজারের অধিক নিসন্তান দম্পতি ডা.শিলা সেনের কাছে চিকিৎসা নিয়ে সন্তানের পিতা মাতা হয়েছেন।
উল্লেখ্য এই হাসপাতালেই ২০১৯ সালের ৫ নভেম্বর এক রমনী ৩ সন্তান প্রসব করেছিল।