ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ৩

স্টাফ করেসপন্ডেন, ময়মনসিংহ ৯ ডিসেম্বর :
ময়মনসিংহের নান্দাইল ও গফরগাঁও উপজেলায় পৃথক সড়ক দূর্ঘটনায় মাদ্রাসা ছাত্রসহ ৩ জনের মৃত্য হয়েছে।

জানা যায়, গফরগাঁওয়ে মোটর সাইকেল ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়। নিহতরা হলেন ইমরান হোসেন (৩০) ও উজ্জল মিয়া (৩০)। অন্যদিকে নান্দাইল উপজেলা এলাকায় যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় সাইকেল আরোহী মাদরাসা ছাত্র নিহত হয়। তার নাম মাজহারুল হক (১৫)।

রবিবার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে নান্দাইলের ঝালুয়া হেমগঞ্জ বাজার ও গফরগাঁও উপজেলার পুরাতন ব্রহ্মপুত্র সেতুর উপর পৃথক এ দূর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, গফরগাঁওয়ের পুরাতন ব্রহ্মপুত্র সেতুর ওপর ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে উপজেলার বিরই গ্রামের আব্দুল হাইয়ের ছেলে মোটরসাইকেল আরোহী ইমরান হোসেন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এ সময় অটোরিকশার ৪ জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়। আহতরা হলেন, উপজেলার চরমছলন্দ নয়াপাড়া গ্রামের উজ্জল মিয়া, একই গ্রামের রোবেল মিয়া, নিধিয়ার চর গ্রামের আসাদ, মাইজপাড়া গ্রামের সোহেল।

খবর পেয়ে গফরগাঁও থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থল থেকে নিহত ও আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। পরে অবস্থার অবনতি হলে চারজনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এসময় ময়মনসিংহ নেওয়ার পথে উজ্জল নামে আরও একজনের মৃত্যু হয়।

গফরগাঁও থানার ওসি অনুকূল সরকার বলেন, খবর পেয়ে লাশ ও আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

অন্যদিকে নান্দাইল উপজেলার কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ আঞ্চলিক মহাসড়কের ঝালুয়া হেমগঞ্জ বাজারের কাছে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় সাইকেল আরোহী মাদরাসা ছাত্র মাজহারুল হক (১৫) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্রকে চাপা দেয়। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে তাকে নান্দাইল এরপর ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সন্ধ্যায় সে চিকিৎসারত অবস্থায় মৃত্যু বরন করেন। নিহত ছাত্র উজেলার ভাটি সাভার গ্রামের বাসিন্দা। সে হেফজ মাদরাসায় অধ্যায়নরত ছিল বলে পারিবারিক সুত্র থেকে জানা গেছে।

নান্দাইল হাইওয়ে থানার ওসি জিয়াউদ্দিন এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় ভৈরব ময়মনসিংহ রোডে চলাচলকরী শ্যামল ছায়া পরিবহনের একটি যাত্রবাহী বাসকে আটক করা হয়েছে। তবে চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছে।