ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-ছেলেসহ নিহত ৬

ফারুক আহমেদ :
ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-ছেলেসহ ছয়জন নিহত হয়েছেন। বুধবার সদর উপজেলার রশিদপুর এবং মুক্তাগাছার সত্রাশিয়া এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন- সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার আব্দুল আজিজের ছেলে বাবলু মিয়া (৪২), নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার করিম মিয়ার ছেলে রিপন মিয়া (৩০), রিপনের ছেলে আবিদ হাসান (১০), ময়মনসিংহ সদর উপজেলার দাপুনিয়া ইউনিয়নের উজানঘাগড়া এলাকার জহিরুল ইসলামের স্ত্রী রিতা আক্তার (২১), একই গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে আমিনুল ইসলাম (৩৫) ও আব্দুল মোতালেবের ছেলে তানভীর (৮)।
কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি (তদন্ত) ফারুক হোসেন বলেন, বুধবার বিকেলে শ্যামগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ময়মনসিংহগামী একটি সিএনজি শম্ভুগঞ্জ এলাকার রশিদপুর নামক স্থানে আসলে নেত্রকোনাগামী একটি বাসের সঙ্গে সংঘর্ষ ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই বাবলু ও রিপনের মৃত্যু হয়। এ সময় নারী ও শিশুসহ আহত হন তিনজন।
স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছেন। সেখানে রাত সাড়ে আটটার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রিপনের ছেলে আবিদ হাসানের মৃত্যু হয়।
অপর দিকে জেলার মুক্তাগাছা মডেল থানার ওসি দুলাল আকন্দ বলেন, বগুড়া থেকে ছেড়ে আসা ময়মনসিংহগামী একটি বাস সত্রাশিয়া বাজার এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা ব্যাটারিচালিত একটি অটোরিক্সার সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এতে অটোরিক্সার পাঁচ যাত্রী আহত হলে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে সন্ধ্যায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক নারী ও শিশুসহ তিনজন মারা যান। এ ঘটনায় বাসটি জব্দ করা সম্ভব হলেও চালক পালিয়ে গেছেন বলেও জানান তিনি।