ময়মনসিংহে পারভেজ হত্যা রহস্য উন্মোচনসহ ৫ আসামি গ্রেফতার

পাষন্ড মায়ের পরকীয়ার কথা জানতে পারায় প্রাণ দিতে হয়েছে সন্তানকে। স্বয়ং মা ও তার প্রেমিকের পরিকল্পনায় নির্মম হত্যার শিকার হয়েছে ১৫ বছরের কিশোর পারভেজ মিয়া।

১১ অক্টোবর ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার উচাখিলায় ব্রহ্মপুত্র নদের পাড় থেকে উদ্ধার হয় স্কুল ছাত্র পারভেজ মিয়ার লাশ। খবর পেয়েই হত্যা রহস্য উন্মোচনে মাঠে নামে র‍্যাব-১৪। ৪ দিনের ব্যবধানে ক্লু লেস এ হত্যা রহস্য উন্মোচন করে প্রধান ৫ আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।

১৫ অক্টোবর ময়মনসিংহ র‍্যাব-১৪ এর প্রেস ব্রিফিংএ নির্মম ও বর্বরোচিত এ হত্যাকান্ডের নেপথ্য কাহিনী তুলে ধরেন র‍্যাব-১৪ উপ পরিচালক ফজলে রাব্বি।

তিনি জানান, উচাখিলা ইউনিয়নের মোঃ এমদাদুল হকের সাথে পরকীয়ায় লিপ্ত ছিলেন হত্যার শিকার পারভেজের মা মোছাঃ রোজিনা আক্তার। এক সময় তাদের পরকীয়ার কথা জেনে ফেলে কিশোর পারভেজ। পথের কাটা পারভেজকে সরিয়ে ফেলতে প্রেমিকের সাথে পরিকল্পনা করে রোজিনা আক্তার। পরিকল্পনা মাফিক হত্যাকান্ডের জন্য ভাড়া করা হয় আরও তিনজনকে। অবশেষে পারভেজ হত্যাকান্ড সংঘটিত হয়।

আসামিরা হলেন, প্রেমিক মোঃ এমদাদুল হক, প্রেমিকা পারভেজের মা রোজিনা আক্তার, ভাড়াটে হত্যাকারী মোঃ গনি, মোঃ সুলতান উদ্দিন, মোঃ রুহুল আমিন।