মেয়রের চেয়ারে আজ বসছেন আতিক, শ‌নিবার তাপস

ঢাকা উত্তর সি‌টি ক‌র্পো‌রেশন (ডিএন‌সি‌সি) নির্বাচ‌নে ভোটে জিতে দ্বিতীয় মেয়া‌দে আজ মেয়র হি‌সে‌বে দায়িত্ব নিচ্ছেন আতিকুল ইসলাম আতিক। আর আগামী শ‌নিবার দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে প্রথমবা‌রের মত মেয়রের চেয়া‌রে বস‌তে যাচ্ছেন শেখ ফজলে নূর তাপস। দুই সি‌টি‌তেই আওয়ামী লী‌গের নৌকা প্রতীক নি‌য়ে জয় লাভ করেন তারা। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা মিলনায়তনে মেয়র হি‌সে‌বে শপথ নেন এ দুই জনপ্রতি‌নি‌ধি।

ডিএন‌সি‌সি এবং ডিএসসিসি নি‌শ্চিত ক‌রে‌ছে, বুধবার দুপুর ১২ টায় দায়িত্ব নেবেন উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম। এরপরই তিনি গণমাধ্যমের মুখোমুখি হবেন ভার্চুয়াল মাধ্যমে। আর ১৬ মে শ‌নিবার দুপুরের দিকে দায়িত্ব নেবেন দক্ষিণের মেয়র শেখ তাপস। ক‌রোনা ভাইরাসের কার‌ণে পৃথকভাবে দুই মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণের বিষয়ে তেমন কোন আনুষ্ঠানিকতা করা হচ্ছেনা।

‌সি‌টি ক‌র্পোরেশন আইন অনুযায়ী, নির্বাচিত মেয়র অথবা কাউন্সিলর করপোরেশনের মেয়াদ শেষ না হওয়া পর্যন্ত দা‌য়িত্ব নি‌তে পা‌রেন না। আইনগত জ‌টিলতার কার‌ণে দুই সি‌টি‌র দা‌য়িত্ব বন্টন হ‌তে সময়ক্ষেপণ হ‌য়ে‌ছে।

আরেক আইনে র‌য়ে‌ছে, করপোরেশনের মেয়াদ সে‌টি গঠিত হবার পর সে‌টির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হবার তারিখ থেকে পাঁচ বৎসর হবে। সে হি‌সে‌বে ডিএসসিসির চলমান বোর্ডের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ১৬ মে। ২০১৫ সালের ১৬ মে মেয়র সাঈদ খোকনের সভাপতিত্বে প্রথম বোর্ড সভা হয়। ওই দিনই দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন শেখ ফজলে নূর তাপস।

এদি‌কে মহামারি ক‌রোনাভাইরা‌সের প্রাদুর্ভা‌ব এবং ডেঙ্গু কালীন সম‌য়ে দুই সি‌টি‌তে দা‌য়িত্ব নি‌তে যা‌চ্ছেন নগর‌পিতারা। এছাড়া নির্বাচনী ইস‌তেহা‌রের চ্যা‌লেঞ্জ তো র‌য়ে‌ছেই।

নিজেকে প্রস্তুত করতে এরই মধ্যে কার্যক্রম শুরু করেছেন দ‌ক্ষি‌ণের নির্বা‌চিত মেয়র শেখ ফজ‌লে নূর তাপস। অনুষ্ঠেয় ডিএসসিসি নির্বাচনের আগে জনগণকে দেয়া তার নির্বাচনী ইসতেহারের প্রতিশ্রুতিগুলোর বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এরই মধ্যে চুড়ান্ত পরিকল্পনা প্রণয়নের কাজ করছেন। এরই মধ্যে কর্মপরিকল্পনা নিয়ে স্টাডি শুরু করেছেন তিনি।

এ প্রস‌ঙ্গে ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের ব্যক্তিগত মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর তারেক শিকদার জানান, বিশ্ব মহামারির পরিবর্ধিত পরিস্থিতিতে আগামী ১৬ মে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। নগরবাসীর সেবা দানের জন্য তার নির্বাচনী ইসতেহারে যে বিষয়গুলো উল্লেখ করেছেন সেগুলোসহ বর্তমান পরিস্থিতি কিভাবে মোকাবেলা করা যায় সে বিষয়টি নিয়ে পরিকল্পনা প্রণয়ন করছেন। এসব বিষয় নিয়ে তিনি বেশ কিছু দিন ধরে কাজ করছেন। দায়িত্ব গ্রহণের পর তিনি তার কার্যাবলী শুরু করবেন।

এর আগে গত ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় ডিএসসিসি নির্বাচন। সেই নির্বাচনে ভোটারদের সমর্থন নিয়ে মেয়রের দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন। নির্বাচনের আগে তার নির্বাচনী ইশতেহারে ঐতিহ্য রক্ষা, সুন্দর ঢাকা, সচল ঢাকা, সুশাসনের ঢাকা এবং উন্নত ঢাকা গড়ার প্রতিশ্রুত দেন। বিভিন্ন নির্বাচনী সভায় তিনি জোরালোভাবে এই পাঁচ প্রতিশ্রুতির কথা বারবার উল্লেখ করেছেন।