মিশনগুলোকে মুজিববর্ষ পালনের নির্দেশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

বিভিন্ন দেশে অবস্থিত বাংলাদেশি মিশনগুলোকে মুজিববর্ষ পালনের নির্দেশনা দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন। মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯) বিদেশস্থ বাংলাদেশের মিশনপ্রধানদের কাছে লেখা এক চিঠিতে তিনি এ নির্দেশ দেন।

চিঠিতে স্বাগতিক দেশের সরকার, সুশীল সমাজ এবং প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিয়ে মুজিববর্ষ পালনের নির্দেশনা দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, মুজিববর্ষ পালন শুধু আনুষ্ঠানিকতা নয়, বরং এটি জাতি হিসেবে আমাদের পরিচয়, বাঙালি জাতি এবং বাংলাদেশ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের একক ভূমিকার প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন।

মুজিববর্ষকে সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশের অভাবনীয় সাফল্য আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে তুলে ধরার একটি বড় সুযোগ হিসেবে উল্লেখ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বিশ্বের সব দেশের সরকার, ব্যবসায়ী, সুশীল সমাজ এবং জনগণের কাছে বাংলাদেশের সাফল্য তুলে ধরার মাধ্যমে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি সমুন্নত রাখতে আরও সক্রিয় ভূমিকা রাখতে বৈদেশিক মিশনগুলোকে নির্দেশনা দেন আব্দুল মোমেন।

বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের বিষয়টি তুলে ধরে আব্দুল মোমেন চিঠিতে লিখেছেন, বর্তমানে আমাদের প্রবৃদ্ধি ৮.১৫ শতাংশ এবং অচিরেই বাংলাদেশের গড় প্রবৃদ্ধি ১০ শতাংশের কোটা স্পর্শ করবে। গত এক দশকে বাংলাদেশের জিডিপি ১৮৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে; মাথাপিছু আয় বেড়েছে সাড়ে তিনগুণ। বর্তমানে আমাদের জিডিপি ৩০২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা ২০০৯ সালে ছিল মাত্র ১০২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। রফতানি আয় প্রায় তিনগুণ বেড়ে আজ ৪০.৫৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও বেশি। গত দেড় দশকে বিনিয়োগ-জিডিপির শতকরা হার ২৬ শতাংশ থেকে বেড়ে ৩১.৫ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। একই সময়ে বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ ৫ গুণ বেড়ে বর্তমানে প্রায় ৭১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সমতুল্য।