মাথা ব্যাথার যেসব কারন

‘মাথা থাকলে ব্যথা হবে’ই এমন কথা প্রচলিত রয়েছে। তবে যিনি মাথাব্যথায় ভুক্তভোগী, তিনিই বোঝেন এতে কী পরিমাণ কষ্ট। অনেকেই মাথা ধরলে সকাল-সন্ধ্যা ওষুধ খেয়ে নেন। জানার চেষ্টা করেন না, কেন প্রতিদিন তার মাথা ব্যথায় কষ্ট পেতে হচ্ছে।

চিকিৎসকরা বলছেন, অবসাদ ছাড়াও মাথাব্যাথার অন্যতম ৫টি কারণ রয়েছে। আপনি এগুলোর কারণে মাথাব্যথায় কষ্ট পাচ্ছেন না তো? জেনে নিন সে ৫টি কারণ-

১. পানির ঘাটতি:
পানির অপর নাম জীবন। পানি রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক রাখে। শরীরের আর্দ্রতা বজায় রাখে, বাড়ায় হজম শক্তি। পাশাপাশি শরীরকে সতেজও রাখে। তাই পানির অভাবে শরীরের নানাবিধ সমস্যা দেখা দেয়। এর একটি হলো মাথাব্যথা। এ জন্য বেশি পরিমাণ পানি পান করে এর থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

২. খাবার:
সময় ও নিয়ম মেনে খাবার না খেলে। কম বা অতিরিক্ত খাবার খেলেও সমস্যা। খাবার থেকেও হতে পারে মাথাব্যথা। খাবর সঠিকভাবে হজম না হলে তা থেকে গ্যাস ও মাথাব্যথা হতে পারে। তাই খিদে পেলেই খাওয়া উচিত। আবার দুই বার খাবারের মাঝে গ্যাপ বেশি হলেও ক্ষুধায় মাথাব্যথা হতে পারে। তাই অল্প করে কয়েকবার খাওয়া ভালো।

৩. ভুলভাবে শোয়া-বসা:
ক্লান্তি কাটাতে আমরা শুয়ে বসে আরাম করি। কিন্তু শোয়া বা বসার কারণেও হতে পারে মাথাব্যথা। সঠিকভাবে না শুলে বা বসলে মেরুদন্ড থেকে মাথা পর্যন্ত ব্যথা ছড়াতে পারে। এতে হজমের সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

৪. অ্যালকোহল আসক্তি:
নিয়মিত ও মাত্রাতিরিক্ত মদ্যপান শুধু মাথাব্যথা নয়; আরও অনেক রোগ বিস্তার করে। বিশেষ করে রেড ওয়াইন অনেক ধরনের রোগ ছড়ায়।

৫. যন্ত্রে জীবন:
সারাক্ষণ ফোন বা ল্যাপটপে ব্যস্ত? অনেকক্ষণ গ্যাজেট ব্যবহারের পর মাথাব্যথা করে? যন্ত্রে অতিরিক্ত আসক্তিও মাথাব্যথার কারণ হতে পারে।