ভ্রাম্যমান দোকানে মিলছে ২শ টাকা কেজিতে গরুর মাংস

অনলাইন ডেস্ক : নিম্নবিত্তদের গরুর মাংস ও মুরগির মাংস খাওয়ার ব্যবস্থা করে দিচ্ছে একদল শিক্ষার্থী। পবিত্র মাহে রমজানে তাদের উদ্যোগের কারণে ২০০ টাকা কেজিতে গরুর মাংস এবং ১০০ টাকা কেজিতে মুরগির মাংস বিক্রি হচ্ছে খুলনার বিভিন্ন এলাকায়। খুলনা পাবলিক কলেজের প্রাক্তন ছাত্রদের ভ্রাম্যমাণ দোকানে মিলছে এই সুবিধা।

বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) নিরালার মোড় ও বাগমারা প্রাথমিক স্কুলের সামনে মাংস বিক্রি করা হয়। অনেক নিম্নবিত্ত মানুষের মাংস খাওয়ার সাধ মেটাচ্ছে তরুণরা। ২য় রমজানে শুরু হয় এই মানবিক কার্যক্রম চলবে ২৭ রমজান পর্যন্ত।

পাবলিক কলেজের প্রাক্তন ছাত্রদের ভ্রাম্যমাণ এই দোকানে দুপুর থেকে সেখানে ভিড় করেন নিম্ন আয়ের মানুষ। কম দামে গরু ও মুরগির মাংস বিক্রির এই উদ্যোগ খুলনায় ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। এক এক দিন এক এক জায়গায় মাংস বিক্রি করছে তারা।

উদ্যোক্তাদের এক শিক্ষার্থী জানান, ভর্তুকি দিয়ে ২০০ টাকায় গরুর মাংস ও ১০০ টাকায় মুরগির মাংস বিক্রি করছি আমরা। নির্দিষ্ট একটা লিমিটে আমরা মাংস বিক্রি করি। সে লিমিট অতিক্রম করলে সেদিন আর আমরা দিতে পারি না। আমরা সবাইকে একটা ম্যাসেজ দিতে চাই যে চাইলেই এভাবে বিক্রি করা যায়।

দ্বিতীয় রমজান থেকে এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রতিদিন নির্দিষ্ট একটি দোকান থেকে হাড় ও চর্বি ছাড়া গরুর মাংস কিনে ৩০০ গ্রাম করে প্যাকেট করা হয়। প্রতি প্যাকেট ২০০ টাকা করে বিক্রি করা হয়। মুরগি ড্রেসিং করার পর ৫০০ গ্রাম বিক্রি করা হয় ১০০ টাকায়। ৭৫০ টাকা করে গরু এবং ২৫০ টাকা করে মুরগির মাংস কেনা হয়। প্রাক্তন ছাত্ররাই বাকি টাকা ভর্তুকি দেন। ২৭ রমজান পর্যন্ত প্রতিদিন একেক এলাকায় চলবে এই কার্যক্রম।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই সেবামূলক কাজ করছেন পাবলিক কলেজের প্রাক্তন ছাত্ররা। স্বল্পমূল্যের মাংসের দোকান এবারই প্রথম।