বঙ্গমাতার চরিত্রে নাবিলা!

ভারত-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী নিয়ে তৈরী হচ্ছে বিগ বাজেটের ছবি ‘বঙ্গবন্ধু’। এটি নির্মাণ করবেন ভারতের গুণী নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল। ছবিটিতে অভিনয়ের জন্য প্রায় শতাধিক শিল্পী এরইমধ্যে অডিশন দিয়েছেন। এখন চলছে বিভিন্ন চরিত্রে শিল্পী বাছাই। এখন পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে জানা গেছে বঙ্গবন্ধুর মা শেখ সায়েরা খাতুনের চরিত্রে অভিনয় করছেন দিলারা জামান এবং হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী চরিত্রে থাকছেন অভিনেতা তৌকির আহমেদ। এছাড়াও ফজলুর রহমান বাবুর নাম শোনা যাচ্ছে খন্দকার মোশতাকের চরিত্রে অভিনয় করবেন বলে।

এবার জানা গেল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্ত্রী অর্থাৎ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার চরিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছেন ‘আয়নাবাজি’খ্যাত অভিনেত্রী মাসুমা রহমান নাবিলা। গতকাল শুক্রবার এফডিসিতে এই চরিত্রে অডিশন দিয়েছেন তিনি।

এই বিষয়ে জানতে নাবিলার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্ত্রী শেখ ফজিলাতুন্নেছার চরিত্রে গতকাল অডিশন দিয়েছি। তবে চূড়ান্ত হওয়ার বিষয়টা আমি এখনও বলতে পারছি না। এটা ছবিটির পরিচালক ও তার টিমের উপর নির্ভর করছে। ’

জানা গেছে, শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের কিশোরী বয়সের চরিত্রে অভিনয় করবেন নাবিলা। তার চরিত্রটি হাজির হবে ‘রেনু’ নাম নিয়ে। কারণ বেগম মুজিবকে ভালোবেসে এ নামেই ডাকতেন বঙ্গবন্ধু।

চাচাতো ভাই শেখ মুজিবের সাথে শেখ ফজিলাতুননেসার যখন বিয়ে হয় তখন তার বয়স মাত্র তিন। ওই সময় শেখ মুজিব পড়ালেখা করার জন্য বাবার সাথে গোপালগঞ্জে থাকতেন। আর রেণু থাকতেন গ্রামের বাড়ি টুঙ্গিপাড়ায় শ্বাশুড়ির তত্বাবধানে।

স্বামীর সান্নিধ্য থেকে বঞ্চিত হবার সুচনা সেই শিশু বয়স থেকেই। তবে সে ব্যাপারে তার আফসোস বা অভিযোগ কিংবা অতৃপ্তি ছিলো না। বরং সেই শিশু বয়স থেকেই তিনি নিজেকে প্রস্তুত করেছিলেন দেশ-মাতৃকার সেবায় স্বামী ও স্বামীর ভালোবাসাকে উৎসর্গ করবেন বলে। বলা চলে এ অনেকটা নিজের জীবনটাকেই উৎসর্গ করে দেয়া। আর তাই বাংলাদেশের স্বাধীনতা বা মুক্তিসংগ্রামের অবিচ্ছেদ্য এক অংশ বেগম মুজিব। বঙ্গবন্ধুর জীবনীতে এই মহীয়সীর ভূমিকা উঠে আসবে শ্যাম বেনেগালের নির্মাণের মুন্সিয়ানায়।