ফের বাংলাদেশিদের জন্য উন্মুক্ত হচ্ছে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার

69

অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশ থেকে ফের মালয়েশিয়ায় শ্রমিক নিয়োগে প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে। এ জন্য বাংলাদেশের সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করতে সম্মত হয়েছে মালয়েশিয়া সরকার।
চলতি মাসেই এটি স্বাক্ষরিত হলে প্রায় তিন বছর পর বাংলাদেশ থেকে সব খাতেই কর্মী নিয়োগের পথ উন্মুক্ত হবে।

মালয়েশিয়ার মন্ত্রীপরিষদে বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক বা এমওইউ সাক্ষরের সিদ্ধান্তের পর দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুক রেসি এম সারাভানান শুক্রবার (১০ ডিসেম্বর) গণমাধ্যমে দেয়া এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছেন।
মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী এম সারাভানান জানান, বৃক্ষরোপণ, কৃষি, উৎপাদন, সেবা, খনি এবং খনন, নির্মাণ ও গৃহকর্মীসহ বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশি শ্রমিক নিয়োগ করা হবে। আগে কেবল বৃক্ষরোপণ খাতে বিদেশি শ্রমিক নিয়োগে মন্ত্রিসভা সম্মতি দিলেও এবার সব খাতের জন্যই বিদেশি শ্রমিক নিয়োগে সম্মতি এসেছে।

মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী আরও জানান, নিরাপত্তা পদক্ষেপ বিবেচনায় তার মন্ত্রণালয় দেশটির বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে বিদেশি শ্রমিক নিয়োগ করবে।
মালয়েশিয়ার সাথে বাংলাদেশের কর্মী নিয়োগের বিষয়ে প্রথম আনুষ্ঠানিক চুক্তি হয়েছিলো ১৯৯২ সালে। কিন্তু কয়েক বছর চলার পর সেটি বন্ধ হয়ে যায়। এরপর ২০০৬ সালে আবার কর্মী প্রেরণ শুরু করে বাংলাদেশ। আবার ২০০৯ সালে মালয়েশিয়ায় শ্রমবাজার বন্ধ হয়ে যায়।
এরপর আবার দুদেশের মধ্যে আলোচনার পর ২০১২ সালে নতুন চুক্তি হয় বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার মধ্যে। কিন্তু কর্মী প্রেরণে সিন্ডিকেটের দৌরাত্মসহ নানা অভিযোগে ২০১৮ সালে সেটি বন্ধ করে মাহাথির মোহাম্মদের সরকার।

এর তিন বছর পর এখন আবার বাংলাদেশি শ্রমিকদের মালয়েশিয়া যাওয়ার পথ উন্মুক্ত হবে- যদি শেষ পর্যন্ত দেশটির মন্ত্রীসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দুদেশের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।