ফুলপুর প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে ছালাম সভাপতি, দিদার সম্পাদক, রাসেল সাংগঠনিক

মোঃ খলিলুর রহমান,বিশেষ প্রতিনিধিঃ
দীর্ঘ ১০ বছর পর বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি ফুলপুর উপজেলা শাখার নির্বাচন ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা ও প্রাণবন্তকর পরিবেশের মধ্য দিয়ে আজ শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ছালাম সভাপতি, দিদার সাধারন সম্পাদক, রাসেল সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। সকাল ১০ টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে বিকাল ৪টায় শেষ হয়। ভোট গ্রহণ চলাকালে শিক্ষকদের ব্যাপক উৎসাহ ও উপস্থিতি লক্ষ করা যায়।

বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি ফুলপুর উপজেলা শাখার ৫১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির মধ্যে সভাপতি ও সাংগঠনিক সম্পাদক ছাড়া বাকী ৪৯টি পদে বিনা প্রতিদন্দীতায় নির্বাচিত হয়।সভাপতি ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদে নির্বাচনে ৬৩৬ জন ভোটারের মধ্যে ৪৮৯ জন ভোটার তাদের ভোট প্রদান করেন।বাতিল ভোটের সংখ্যা ২৫টি।
সভাপতি পদে দিউ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুস ছালাম ২৫৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়। নিকটতম প্রতিদ্বন্দী হরিণাকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক পায় ২০৯ ভোট। সাংগঠনিক সম্পাদক পদে খালসাইদকোণা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক শেখ রাসেল ২৭৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়।তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী কলতাকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক রফিকুল ইসলাম পায় ১৮৭ ভোট।
বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন ফুলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক গোলাম কবির দিদার।

নির্বাচন চলাকালে ফুলপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল হাকীম সরকার, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য শাহ্ কুতুব চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল করিম রাসেল, পৌর মেয়র মোঃ আমিনুল হক, পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি খলিলুর রহমান, বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রিয় কমিটির সভাপতি আনোয়ারুল হক তোতা, ময়মনসিংহ জেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াদুদ ভূঁইয়া ও সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আলী হোসেন আকন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতি বাবুল মিয়া সরকার ও নির্বাচনে প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মোঃ রেজাউল কবির।