ফুলপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় মায়ের সামনে সন্তানসহ নিহত ২, আহত-৫

মোঃ খলিলুর রহমান, ফুলপুর প্রতিনিধি :
ময়মনসিংহের ফুলপুরে সোনার বাংলা বাস ও সিএনজি’র মুখোমুখি সংঘর্ষে মায়ের চোখের সামনে জায়েদ (৬) নামে এক মাদরাসা ছাত্রসহ ২ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় মা কাজল (২৫) ও কোলের শিশু মুন্নী (৪),সহ আরো ৫ জন আহত হন। গুরুতর আহত ৪ জনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ঢাকা-শেরপুর মহাসড়কের ফুলপুর উপজেলার ইমাদপুর গ্রামের মোদকপাড়া নামক স্থানে বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, শেরপুর থেকে ঢাকাগামী সোনার বাংলা পরিবহণের (ঢাকা মেট্রো ব-১১-৬৬২২) একটি বাস ও ময়মনসিংহ থেকে শেরপুরগামী একটি সিএনজি (ময়মনসিংহ থ-১১-৩৭৮৫)র সাথে ফুলপুর উপজেলার ইমাদপুর গ্রামের মোদকপাড়া নামক স্থানে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।এতে সিএনজিটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়।এতে ঘটনাস্থলেই জায়েদ নামে ৬ বছরের এক শিশু তার মায়ের চোখেঁর সামনেই ঘটনাস্থলে নিহত হয় ও তার মা কাজল (২৫), ছোট বোন মুন্নী (৪), ফুফু তামান্না (২৫)ও দাদী বেগম (৪৫), আবুল হোসেন (৫০) ও সিরাজ (৪৫) আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর গুরুতর আহত তামান্না (২৫), বেগম (৪৫), আবুল হোসেন (৫০) ও সিরাজ (৪৫)কে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। সেখানে চিকিৎসকরা সিরাজকে মৃত ঘোষণা করেন। তাদের মধ্যে তামান্নার অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানান চিকিৎসকরা।
নিহত জায়েদ শেরপুর কালিবাড়ি টেংগুরিয়া মাদরাসার নূরানী ক্লাসের ছাত্র ও প্রাইভেট কার চালক আব্দুল মালেকের পুত্র। অপরদিকে নিহত সিরাজের বাড়ি শম্ভুগঞ্জ সদর এলাকায়।

এ স্থানে কয়েকটি দুর্ঘটনা সংঘটিত হওয়ায় স্থানীয় লোকজন স্পীড ব্রেকারের দাবিতে ঘন্টাব্যাপী রাস্তা অবরোধ করে রাখে। পরে ফুলপুর প্রশাসন স্পীড ব্রেকার স্থাপনের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। পুলিশ সোনার বাংলা পরিবহণের বাস ও সিএনজিটি জব্দ করেছে। ফুলপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল করিম রাসেল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম ও ফুলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইমারত হোসেন গাজী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ও আহতদের হাসপাতালে দেখতে যান।