ফুলপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান, মাস্ক না পড়ায় ২২ জনকে জরিমানা

মোঃ খলিলুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধি :
ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলা সদরে বাসষ্ট্যান্ড ও আমুয়াকান্দা এলাকায় অভিযান চালিয়ে মাস্ক না পড়ায় ২২ জনকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় মাস্ক পড়া নিশ্চিত করতে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে ব্যাপক প্রচারণাও চালানো হয়েছে।

ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শীতেষ চন্দ্র সরকার এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাতেমা তুজ জোহরা বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত পৃথক অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা করে তা আদায় করেন।সেই সাথে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশ প্রদান করা হয় এবং ভবিষ্যতের জন্য কয়েকজনকে সর্তক করা হয়।

ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শীতেষ চন্দ্র সরকার নেতৃ্ত্বে ভ্রাম্যমান আদালত সকাল ১১ টায় বাসষ্ট্যান্ড এলাকায অভিযান চালিয়ে মাস্ক না পড়ার অপরাধে ১৮৬০ সালের দন্ডবিধির ২৬৯ ধারায় মুকুলকে ১ হাজার, কাউসার আহাম্মদকে ৫ শ, ধিমানকে ২ শ, রফিকুল ইসলামকে ২শ, নূর হোসেনকে ২শ, শাহ আলমকে ২শ, বাবুলকে ২ শ, সৌরভকে ২শ, রফিক ৫শ, আমিরুর ২শ, নয়ন ৫শ, আশরাফুলকে ২শ, সিদ্দীককে ৩শ, মোশারফকে ৩শ, নোমানকে ২শ, দেলোয়ার ৫শ ও খোকনকে ৫শ টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেন।
অপর দিকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাতেমা তুজ জোহরা’র নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত বেলা ১২ টায় আমুয়াকান্দা এলাকায অভিযান চালিয়ে মাস্ক না পড়ার অপরাধে হামদর্দ ল্যাবরেটরী ওয়াকফ ফুলপুর শাখার চিকিৎসক ডাঃ আব্দুল মোত্তালিবকে ৫ হাজার, জিহাদুল ইসলামকে ৩ হাজার, আমিনুলকে ১ হাজার, সাগরকে ৫শ ও নজরুল ইসলামকে ৫শ টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেন।

এসময় সহযোগিতা করেন ফুলপুর থানার এস আই জাহিদ, যুব রেড ক্রিসেন্টের ফুলপুর প্রধান তাসফিক হক নাফিওসহ স্বেচ্ছাসেবক ও পুলিশ ফোর্স।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাতেমা তুজ জোহরা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আইন প্রয়োগের পাশাপাশি জনসচেতনতার কোন বিকল্প নেই। জনসম্পৃক্ততাই পারে প্রশাসনের এ নির্দেশ গুলো বাস্তবায়নে সফলতা আনতে। সে লক্ষে তিনি উপজেলার সর্বস্তরের জনতার সার্বিক সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। তিনি আরও বলেন। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে মানুষ মাস্ক না পড়লে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা বাড়ানোসহ আরও কঠোর ব্যাবস্থা নেয়া হবে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।