ফুলপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধা নবী হোসেনের দাফন সম্পন্ন, জানাযায় মানুষের ঢল

69

মোঃ খলিলুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ
এই সুন্দর পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চিরতরে বিদায় নিলেন ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান একাত্তরের বীর সেনানী আলহাজ্ব নবী হোসেন (৬৭)। একাত্তরের বীর সেনানী নবী হোসেনকে রাস্ট্রীয় সম্মাননা দিয়ে নামাজে জানাযা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে। নামাজে জানাযার পূর্বে ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শীতেষ চন্দ্র সরকারের নেতৃত্বে পুলিশের একটি চৌকস দল বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নবী হোসেনকে গার্ড অব অনার দিয়ে রাস্ট্রীয় সম্মাননা জানান।

শনিবার (১১ ডিসেম্বর) সকাল ১০ টায় সঞ্চুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে মরহুমের নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। নির্ধারিত সময়ের অনেক আগে থেকেই ফুলপুর ও আশপাশের উপজেলা থেকে মুসল্লীরা নামাজে জানাযায় অংশ নেয়ার জন্য আসতে থাকে। একপর্যায়ে সঞ্চুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে জানাযার নামাজে মানুষের ঢল নেমে আসে। জানাযা শেষে মরহুমের লাশ গোরস্তানে দাফন করা হয়।

জানাযার নামাজপূর্বে উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমানের সঞ্চালনায় আগত মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে মরহুমের স্মৃতিচারণ করে অনেকেই বক্তব্য রাখেন। জানাযার নামাজে ফুলপুর ও আশপাশের উপজেলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, বিএনপি সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, জেলা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নেতৃবৃন্দ, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, এলাকারগণ্যমান্য ব্যাক্তিসহ সর্বস্তরের লোকজন অংশ নেন।

ফুলপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান একাত্তরের বীর সেনানী আলহাজ্ব নবী হোসেন (৬৭) দীর্ঘদিন যাবৎ শ্বাসকষ্ট ও নানা জটিল রোগে ভুগছিলেন। শুক্রবার (১০ ডিসেম্বর) দুপুরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।সংসার জীবনে ১ ছেলে ও ১ মেয়ের জনক তিনি। ছেলে আনোয়ার হোসেন ময়মনসিংহ বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) হিসেবে কর্মরত। মেয়ে নূরজাহান বেগম ময়মনসিংহ মুমিনুন্নেসা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক। মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ নবী হোসেন উপজেলার সঞ্চুর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে ১৯৫৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১১নং সেক্টরের অধীনে যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন।

তাঁর মৃত্যুতে গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল করিম রাসেল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শীতেষ চন্দ্র সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, পৌর মেয়র মি. শশধর সেন, ফুলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগ, জেলা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নেতৃবৃন্দ, ফুলপুর প্রেসক্লাবসহ, বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেন এবং মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান এবং বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।