ফুলপুরে ফেলে যাওয়া শিশু রিয়ামনির পাশে ইউএনও, সন্ধান পাওয়া যায়নি পরিবারের

মোঃ খলিলুর রহমান :
ময়মনসিংহের ফুলপুর পৌর এলাকার পুরাতন কোর্ট বিল্ডিং এর পাশে গাড়ি থেকে ফেলে যাওয়া ৮/৯ বছরের শিশু রিয়ামনি’র পাশে দাড়িয়েছেন ফুলপুরের মানবিক উপজেলা নির্বাহী অফিসার শীতেষ চন্দ্র সরকার।

ইউএনও অফিস সূত্রে জানা যায়, ফুলপুর উপজেলা পরিষদের পুরাতন কোর্ট বিল্ডিংয়ের পাশে সোমবার সকাল ৮ টার দিকে ৮/৯ বছরের একটি মেয়েকে গাড়ি থেকে ফেলে রেখে যায়।পরে খবর পেয়ে মানবিক উপজেলা নির্বাহী অফিসার শীতেষ চন্দ্র সরকার শিশুটিকে উদ্ধার করে নিজের অফিসে নিয়ে আসেন। সেখানে আনার পর মেয়েটি জানায় রাসেল নামে এক ব্যক্তির ঢাকার বাসায় কাজ করতো। সকালে রাসেল নামে এক ব্যক্তি তাকে এখানে ফেলে রেখে যান। মেয়েটি জানায়, তার নাম রিয়ামনি,
পিতার নামঃ নুরুল আমিন ,মাতার নামঃ রাবেয়া ,ঠিকানাঃ ইটখোলা। সে আরও বলে তার মা বেঁচে নেই। তবে তার বাবা বেঁচে থাকলেও কোথায় আছে সে বলতে পারছে না। বাড়ি শুধু বলছে ইটখোলা। এর বেশি কিছু বলতে পারছে না।
শিশুটিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শীতেষ চন্দ্র সরকার সাথে সাথে খাবারসহ নতুন জামা-কাপড় ও শীতের গরম কাপড় কিনে দেন। সেই সাথে শিশুটির পরিবারের কাছে ফেরানোর চেষ্টা করছেন তিনি।শিশুর প্রতি ইউএনও’র দ্বায়িত্বশীল মানবিক অাচরনে প্রশংসায় ভাসছেন তিনি। সন্ধ্যা পর্যন্ত কন্যা শিশুর কোন গার্ডিয়ান কিংবা কোন নিকটাত্মীয়ের সন্ধান না পাওয়ায় পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ফুলপুর থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার। বর্তমানে সে ফুলপুর থানায় রয়েছে। যদি কোন ব্যক্তি তাকে চিনেন কিংবা তার বাড়ি কিংবা তার মা বাবার সন্ধান বলতে পারেন, তাহলে ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ফুলপুর থানার সাথে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হলো।