ফুলপুরে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন

মোঃ খলিলুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধিঃ
ময়মনসিংহের ফুলপুরে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে যথাযথ মর্যাদায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।

ফুলপুর উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত দিন ব্যাপী কর্মসূচীর মধ্যে ছিল, ১৫ আগষ্ট বৃহস্পতিবার সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বে-সরকারি ভবন সমুহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে উত্তোলন, সকাল সাড়ে ১১ টায় শোক র‍্যালী। শোক র‍্যালীটি উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে শুরু হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়। শোক র‍্যালীতে উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের নেতৃ্ৃবৃন্দ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীগণ, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি অংশ গ্রহণ করেন। র‍্যালী শেষে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে আলোচনা সভা, মোনাজাত ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান হয়।

ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন,ফুলপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল করিম রাসেল, উপজেলা আওয়ামীলীগের সিঃ যুগ্ম আহবায়ক মুক্তিযোদ্ধা এমএ হাকিম সরকার, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক শশধর সেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, সহকারী কমিশনার (ভুমি) তৃপ্তি কণা মন্ডল, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি খলিলুর রহমান, সাবেক মেয়র মোঃ শাহজাহান, জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুল খালেক, ফুলপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ইমারত হোসেন গাজী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান ও রোকেয়া পারভীন লাকি, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম, উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগ আহবায়ক রাসেল আহমেদ রয়েল, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক বাদশা আলমগীর, আওয়ামীলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম, উপজেলা শ্রমিকলীগের আহবায়ক এটিএম রফিকুল করিম নোমান, বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি আমজাদ হোসেন, রোস্তম আলী বোলন প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার পরিতোষ সুত্রধর।

বাদ যোহর সকল মসজিদে বিশেষ মোনাজাত, সকল মন্দির, গীর্জা ও ধর্মীয় উপসনালয়ে বিশেষ প্রার্থণা, অফিসার্স ক্লাব মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর জীবণ আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক স্থিরচিত্র/আলোকচিত্র এবং ছবিতে বাংলাদেশের ইতিহাস প্রদর্শন করা হয়।