পিবিআই ময়মনসিংহ জেলা কর্তৃক অপহৃত ভিকটিম উদ্ধার

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি :
পিবিআই ময়মনসিংহ জেলা কর্তৃক এক অপহৃত ভিকটিম উদ্ধার করা হয়েছে।
সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে পিবিআই ময়মনসিংহ জেলা কর্তৃক এক প্রেস বিজ্ঞতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
জানাযায়,গত ২১/১১/১৯ইং সালে জেলার ভালুকা উপজেলার রারৈ গ্রামের ফলান শেকের ছেলে মোঃ সুজন শেখ (১৩) স্কুলে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। সে জইদরখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র। এই ঘটনায় অপহৃতের পিতা মোঃ ফালান শেখ বাদি হয়ে (১) জনৈক মোঃ আব্দুল কাদির ও (২) জনৈক মোঃ সওদাগর আলী বিবাদীগণের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে ভালুকা থানার সিআর মামলা নং-১৫১/১৯, ধারা-নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/০৩) এর ৭/৩০ দায়ের করে।
বাদীর অভিযোগ তার সাথে বিবাদী আব্দুল কাদিরের দীর্ঘদিন যাবত জমাজমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে এবং বিবাদী মোঃ সওদাগর আলী বাদীর নিকট তার পারিবারিক প্রয়োজনে ২০ হাজার টাকা ধার চায়। ৭ দিনের মধ্যে ফেরত দিবে মর্মে বাদী ১০ হাজার টাকা ধার দেয়। কিন্তু ছয়মাস সময় অতিবাহিত হয়ে গেলেও সওদাগর আলী টাকা ফেরত দেয়নি এবং বাদী টাকা ফেরত চাইলে গালমন্দ করে। এর ফলোশ্রæতিতে বিবাদীগণ তার ছেলে ভিকটিম সুজন শেখকে ঘটনার দিন ও সময়ে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে আটক করে রাখে।
বাদীর উক্ত মামলা বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে গত ১১/০৩/২০২০ ইং পিবিআই, ময়মনসিংহ জেলা মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে। পিবিআই, ময়মনসিংহ জেলা কর্তৃক মামলা তদন্তকালে সোমবার অদ্য ১২/১০/২০২০ইং ভোর অনুমান ০৫.৩০ ঘটিকার সময় অত্র মামলার ভিকটিম সুজন শেখ (১৪) কে সালনা, চেয়ারম্যান বাড়ি, গাজীপুর এলাকা থেকে উদ্ধার করে। বিজ্ঞতিতে আরো জানানো হয় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, ২০০০ (সংশোধনী/০৩) এর ২২ ধারা মোতাবেক ভিকটিমের জবানবন্দি গ্রহনের জন্য তাকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।