নেতাকর্মীদের ভিড় লেগেছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে

আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগের তৃতীয়তম জাতীয় সম্মেলন ঘিরে নেতাকর্মীদের উপচে পড়া ভিড় লেগেছে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) সকাল থেকেই রাজধানীসহ সারা দেশে থেকে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা মিছিল-স্লোগানে মাতিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে বিপুল উৎসাহ -উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে। রাজধানীর ও চারপাশ সেজেছে বর্ণনিল সাজে। প্ল্যাকার্ড, ব্যানার, ফেস্টুনসহ বিভিন্ন পোস্টারে ছেয়ে গেছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও আশপাশের এলাকা।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের বিভিন্ন শাখার নেতারা বিভিন্ন রঙের ক্যাপ-টি-শার্ট পরে সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন। নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে ইতিমধ্যেই কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান।

জানা গেছে, ১৯৯৪ সালের ২৭ জুলাই আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা স্বেচ্ছাসেবক লীগ প্রতিষ্ঠা করেন। সাবেক এমপি হাজী মকবুল হোসেনকে আহ্বায়ক করে প্রথম কমিটি হয়। ২০০৩ সালের ২৭ জুলাই সংগঠনের প্রথম সম্মেলনে আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম সভাপতি ও পংকজ দেবনাথ সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

আওয়ামী লীগের ২০০৯ সালের জাতীয় সম্মেলনে আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম সাংগঠনিক সম্পাদক হলে স্বেচ্ছাসেবক লীগের তৎকালীন সহসভাপতি অ্যাডভোকেট মোল্লা মো. আবু কাওছার প্রথমে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং পরে সভাপতি মনোনীত হন। ২০১২ সালের ১১ জুলাই সংগঠনের দ্বিতীয় সম্মেলনে মোল্লা মো. আবু কাওছারকে সভাপতি এবং পংকজ দেবনাথ এমপিকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে ছাড়া এবারের সম্মেলনে হচ্ছে। ক্যাসিনোকাণ্ডে নাম আসায় সংগঠনের সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওছারকে অব্যহতি দেয়া হয়। সভাপতিকে অব্যাহতি দেয়ার একদিন পরই সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথকে সম্মেলন থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেয়া হয়।