নীরবে-নিভৃতে বাঙালির স্বাধীনতার জন্য কাজ করেছেন বঙ্গমাতা – হাফেজ রুহুল আমিন মাদানী এম.পি

এইচ. এম জোবায়ের হোসাইন :
ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ময়মনসিংহ-৭ ত্রিশাল আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা রুহুল আমিন মাদানী বলেছেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছিলেন এক অনন্য-অসাধারণ মহীয়সী নারী। তিনি নীরবে-নিভৃতে বাঙালি জাতির স্বাধীনতার জন্য কাজ করে গেছেন।
তিনি বলেন, বঙ্গমাতা তার পরিবারকে যেমনি আগলে রেখেছিলেন তেমনি বাঙালি জাতিকেও একটি পরিবারের মতোই আগলে রেখেছিলেন।
তিনি শনিবার বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা ছাত্রলীগের আয়োজনে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।
সাংসদ রুহুল আমিন মাদানী বলেন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব প্রচার বিমুখ ছিলেন। তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ছায়ার মতো আগলে রেখেছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যতদিন কারাগারে ছিলেন বঙ্গমাতা নিবেদিত ভাবে নীরবে-নিভৃতে বাঙালি জাতিকে সুসংগঠিত করে স্বাধিকার ও স্বাধীনতার সংগ্রামের আন্দোলন এগিয়ে নিয়ে গেছেন।
শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকীতে তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করে রুহুল আমিন মাদানী আরো বলেন, বঙ্গমাতার অবদান আসলে সেভাবে প্রকাশিত হয়নি। কিন্তু আজ আমরা ইতিহাস থেকে অনেক কিছুই জানতে পারি।
আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রবীননেতা ফজলে রাব্বী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক আব্দুল হামিদ, আবুল কালাম, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাক মতিউর রহমান চানু, পৌর আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মোকসেদুল আমিন মৃধা, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ইমরান হোসেন, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মনোয়ার হোসেন প্রমূখ।