নিতাই চন্দ্র রায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কারে ভূষিত

ষ্টাফ করেসপন্ডেন্ট :
বাংলাদেশের গণমানুষের স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার প্রচেষ্টায় কৃষি উন্নয়নে জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও উদ্বুদ্ধকরণ ও প্রচারণামূলক কাজের মাধ্যমে কৃষি উন্নয়নে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার নিতাই চন্দ্র রায় উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। দেশ গড়ার প্রচেষ্টায় এই কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তাঁকে ‘বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার -১৪২৪’ এর ব্রোঞ্জপদকে ভূষিত করা হয়।
গত ২৭ জুন, ২০২১ ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এই পুরস্কার প্রদান করেন। জাতীয় এই গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যুক্ত থেকে করতালির মাধ্যমে পুরস্কারপ্রাপ্তদের উৎসাহিত করেন। উল্লেখ্য অনুষ্ঠানে কৃষিতে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য সারা দেশ থেকে ৫জন ব্যক্তি/ প্রতিষ্ঠানকে স্বর্ণপদক, ৯ জনকে রৌপ্যপদক ও ১৮ জনকে ব্রৌঞ্জপদক প্রদান করা হয়। কৃষিবিদ নিতাই চন্দ্র রায় একজন অক্লান্ত কলম সৈনিক। তিনি কৃষি বিষয়ক বিভিন্ন বিষয়ের ওপর প্রবন্ধ রচনা করে জনগণের মধ্যে কৃষি সংশ্লিষ্ট জ্ঞান ছড়িয়ে দিচ্ছেন। জাতীয় দৈনিক পত্রিকা, পাক্ষিক পত্রিকা এবং মাসিক কৃষি পত্রিকায় তার লেখা প্রবন্ধ/ নিবন্ধের সংখ্যা যথাক্রমে ১৮০ টি, ১০টি ও ২০টি।তার লিখিত প্রবন্ধের মধ্যে নগরীয় কৃষি, বসতবাড়িতে ফলের চাষ, পরিবেশবান্ধব বৃক্ষ রোপণ আখের সাথে বাঁধাকপি চাষ, ড্রাগন ফলের বাণিজ্যিক সম্ভাবনা, কৃষির জন্য বাজেট, ভোজ্য তেলের চাহিদা পূরণের পদক্ষেপ, মাশরুম চাষ, ই-কৃষি, সুগারবিট ও সয়াবিন চাষের সম্ভাবনা, কৃষি জমির সুরক্ষা, পানি সম্পদের টেকসই ব্যবহার, নারী শ্রমিকের ন্যায্য পাওনা নিশ্চিতকরণ, শিল্প বর্জ্য মিশ্রিত পানি ব্যবস্থাপনা অন্যতম। তার লেখা পড়ে ছাত্রছাত্রী, গবেষক, সরকারি -বেসরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারি, কৃষকসহ সংশ্লিস্ট সব শ্রেণির মানুষ উপকৃত হচ্ছেন।