দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সরকার কাজ করে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
তিনি বলেন, ‘আমরা দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি। আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে পরিবহন খাতে ধারাবাহিকভাবে বিনিয়োগ বৃদ্ধি পাওয়ায় এ খাতে দৃশ্যমান উন্নতি সাধিত হয়েছে। রাষ্ট্রীয় গণপরিবহন ব্যবস্থার পরিধি বৃদ্ধি পেয়েছে। সড়ক পরিবহন ব্যবস্থায় শৃঙ্খলার উন্নতি ঘটেছে। মহাসড়ক নেটওয়ার্ক পূর্বের তুলনায় অনেক স¦স্তিদায়ক হয়েছে।’
আগামীকাল (২২ সেপ্টেম্বর) বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস উপলক্ষে আজ শনিবার দেয়া এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘সেফ ওয়াকিং এবং সাইক্লিং’।
শেখ হাসিনা বলেন, যানজট, বায়ু ও শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণ এবং ব্যক্তিগত গাড়ির ওপর নির্ভরতা হ্রাস করার লক্ষ্যে সরকার সংশোধিত কৌশলগত পরিবহন পরিকল্পনা (আরএসটিপি) প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করছে। এরই ধারাবাহিকতায় ঢাকা মহানগরীর যানজট নিরসনে ও ব্যক্তিগত গাড়ির ওপর নির্ভরতা হ্রাসে দেশের প্রথম মেট্রোরেল গণ র‌্যাপিড ট্রানজিট (এমআরটি) লাইন-৬ নির্মাণের কাজ পুরোদমে চলছে। ঢাকা মহানগরী ও গাজীপুর মহানগরীর জনসাধারণের দ্রুত যাতায়াতের সুবিধার্থে বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি)-(গাজীপুর-এয়ারপোর্ট) করিডোর নির্মাণের কাজও এগিয়ে চলছে।
তিনি বলেন, আরএসটিপি বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে এমআরটি লাইন-১ এবং এমআরটি লাইন-৫ নির্মাণের লক্ষ্যে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা চালানো হচ্ছে। এ দু’টি লাইনে প্রথমবারের মতো
প্রায় ৩২ কিলোমিটার আন্ডরগ্রাইন্ড এমআরটি বা পাতাল রেলের সংস্থান রাখা হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকা মহানগরীতে প্রথমবারের মতো পথচারী রোড প্রবর্তনের সুযোগ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। এসব পদক্ষেপ বাস্তবায়িত হলে ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহারকারীরা স¦াচ্ছন্দ্যে গণপরিবহনে যাতায়াতের সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।
দিবসটি পালনের জন্য ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ (ডিটিসিএ) ও অন্যান্য সরকারি-বেসরকারি সংস্থাকে অভিনন্দন জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ব্যক্তিগত গাড়ি ছেড়ে গণপরিবহনে যাতায়াত উৎসাহিত করার লক্ষ্যে বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস পালন করা হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত।’
বাণীতে তিনি দিবসটি পালনের মধ্য দিয়ে গণপরিবহনে যাতায়াত উৎসাহিত হবে বলে আশা প্রকাশ এবং বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস ২০১৯ এর সার্বিক সফলতা কামনা করেন।-বাসস