ত্রিশালে ৮ম শ্রেণীছাত্রীরবাল্য বিয়ে রুখে দিল পুলিশ

ফারুক আহমেদ :
বিয়ের আয়োজন চলছিল ধুম-ধামে, কিছুক্ষন পর আসবে বরের গাড়ি, সকল আয়োজন হয়েছে সম্পন্ন। এমন এসময় জুরুরী পুলিশসেবার ৯৯৯-এর কল আসে ত্রিশাল থানায়। পুলিশের উপস্থিতি আঁচ করতে পেরে পথেই থেমে যায় বরযাত্রীর গাড়ি।
ঘটনাটি ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার সদর ইউনিয়নের ছলিমপুর পশ্চিমগ্রামের। ত্রিশাল থানা পুলিশজানায়, ত্রিশালউপজেলারসদরইউনিয়নেরছলিমপুরপশ্চিমপাড়াগ্রামেরশফিউলইসলামেরমেয়ে ৮ম শ্রেণী পড়–য়া ছাত্রীরবিয়েরপ্রস্তুতিসম্পন্নহয়েছিলশুক্রবার। দুপুরেপুলিশেরজুরুরীসেবা ৯৯৯ এ কলআসে। কল পেয়েত্রিশাল থানাপুলিশেরউপ-পরিদর্শক (এস.আই) রুবেলখান ও (এ.এস.আই) আহসানহাবীবঘটনাস্থলে পৌছেকনেরশিক্ষাগত যোগ্যতারকাগজপত্র দেখে বিয়েদিতেবারণকরেন। পুলিশেরউপস্থিতিরসংবাদ বরপক্ষেরকাছে পৌছলেতারারাস্তা থেকেই ফিরেযায়।
ত্রিশাল থানাপুলিশেরউপ-পরিদর্শক (এ.এস.আই) আহসান হাবীব জানান, আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে কনেরপরিবারকে বাল্য বিয়েরকুফল ও না দেওয়ার সুফলসম্পর্কে তাদের বুঝালে মেয়ের পিতা-মাতা মুচলেকা দেয় যে মেয়ে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়াপর্যন্ত তাকে বিয়ে দিবেনা। পরেবিয়েবন্ধহয়।