ত্রিশালে ১টি মুরগির বিনিময় ১কেজি পেঁয়াজ ক্রয়!

ফারুক আহমেদ,ত্রিশাল :
ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলায় বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। ব্যবসায়ীরা নিজেদের খুশি মতো দামে বিক্রি করছেন পেঁয়াজ। কেজি প্রতি বিক্রি হচ্ছে ১১৫-১২০টাকায়।এতে দুর্ভোগে পড়েছেন ভোক্তা সাধারণ। এজন্যে তারা দায়ী করছেন আসাধু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট ও নিয়মিত বাজার মনিটিরিং না করাকে।
জানা গেছে, বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধের ঘোষণার পরপরই ত্রিশালে ওই পণ্যের দামে চরম অস্থিরতা সৃষ্টি হয়। ২০-২৫ টাকা থেকে একলাফে ৮০-৯০ টাকা ধরে বিক্রি শুরু হয় পেঁয়াজ। তারপর থেকে দিনে দিনে ১০০ টাকা ছাড়িয়ে যায় পেঁয়াজের দাম। পরে মিয়ানমার থেকে রপ্তানি শুরু হলে পাইকারি বাজারে দাম কমলেও খুচরা বাজারে মোটেও এর প্রভাব পড়েনি।
সরেজমিনে ত্রিশালের বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, উপজেলা সদরে বিভিন্ন পাইকারি দোকানে ১১০-১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। খুচরা বিক্রেতারা বিক্রি করছেন আরো বেশী। ফের পেঁয়াজের বাজার অস্থির হওয়ায় চরম বেকায়দায় পড়েছেন ক্রেতা সাধারণ।
ক্রেতা মো. সালমান হোসেন বলেন, বর্তমানে ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১১০-১২০ টাকায়। বাজারে ব্রয়লার মুরগির দাম আর পেঁয়াজের দাম সমান সমান। এ অবস্থায় নিত্যপ্রয়োজনীয় অন্য মসলার সাথে পেঁয়াজ কেনা কঠিন হয়েছে পড়েছে। এদিকে মুরগি ব্যবসায়ী আব্দুল মালেক বলেন- আমি গতকাল ১কেজিরও বেশি ওজনের একটি ব্রয়লার দিয়ে ১কেজি পেঁয়াজ নিতে হয়েছে।
খুচরা ব্যসায়ীরা জানান, পেঁয়াজ কিনতে আমাদের খরচ বেশি। তাছাড়া পঁচে নষ্টও হয়ে যায়। তাই এমন দামে বিক্রি করছি আমরা।
পাইকারি ব্যবসায়ীরা বলেন, আড়তদাররা দাম না ছাড়লে আমাদের কিছু করার থাকে না। কেজি প্রতি খরচসহ ১০০-১০৫ টাকায় কিনতে হয় আমাদের। সামান্য মুনাফায় ১০৭-১০৮ টাকায় বিক্রি করি আমরা।