ত্রিশালে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে কওমী মাদ্রাসার শিক্ষক আটক

ফারুক আহমেদ :
ময়মনসিংহের ত্রিশালে ১৪ বছরের কিশোরী আবাসিক মাদ্রসার ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে কওমী মাদ্রাসার শিক্ষককে আটক করেছে ত্রিশাল থানা পুলিশ।
জানাযায়, উপজেলার ধানীখোলা ইউনিয়নের কাটাখালী গ্রামে দারুল কুরআন কওমী ক্যাডেট মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করে আব্দুল সালাম (৩২)। প্রতিষ্ঠার পর থেকে সে এবং তার দুই স্ত্রী দিয়ে মাদ্রাসাটি পরিচালনা করে আসছে।
আব্দুল সালামের গ্রামের বাড়ি ধানীখোলা ইউনিয়নের কাটাখালী গ্রামে। ত্রিশাল থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বিভিন্ন ভাবে ভয় ভীতি দেখিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণের পর প্রচুর রক্তক্ষরণ হলে পার্শবর্তী ফুলবাড়ীয়া উপজেলার একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর তাকে নিয়ে আসে।
অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মৃত্যু শর্য্যায় ঐ ছাত্রী (১৪) । ওই কিশোরী অত্র মাদ্রাসায় আবশ্যিকভাবে থাকতেন । সম্প্রতি বাড়িতে ঐ ছাত্রী আসলে তাকে খুবই অসুস্থ্য দেখে তার মা তাকে জিজ্ঞেস করলে সে জানায় গত ৫ জুলাই আব্দুল সালাম হুজুর তাকে ধর্ষণ করেছে। তার মা নাসিমা খাতুন জানার পর গত রবিবার (২৫ জুলাই) ত্রিশাল থানায় এসে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের পর ত্রিশাল থানা পুলিশ ধর্ষককে ঐ দিনই (রবিবার) রাতে অত্র মাদ্রাসা থেকে গ্রেফতার করে সোমবার বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করে।
এ ব্যাপারে ত্রিশাল থানার ওসি মাইন উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন ধর্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে ধর্ষক তার অভিযোগ স্বীকার করার পর তাকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।