তারাকান্দায় চকলেটের প্রলোভনে শিশু ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেফতার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, ময়মনসিংহ ১৪ জানুয়ারি :
ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার পল্লী এলাকায় চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে এক শিশুকে ধর্ষন করেছে একই বদর উদ্দিন নামে একব্যাক্তি। এঘটনায় নির্যাতিত শিশুর মা হাসনা হেনা বাদি হয়ে তারাকান্দা থানায় নারী ও নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। এদিকে মামলা রুজু হওয়ার দুই ঘন্টার মধ্যে ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এতে পুলিশের প্রতি জনগণের আস্থা বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানিয়েছেন এলাকার সচেতন মহল।

তারাকান্দা থানার ওসি আবুল খায়ের এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, গত ২ জানুয়ারি উপজেলার কাকনি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিশু শিক্ষার্থী (বয়স ৮ বছর) পাশের বাড়ীর আঃ খালেকের ছেলে বদির উদ্দিনের বাড়ির উঠানে বালি দিয়ে খেলা করছিল। পরে বদির উদ্দিন শিশুটিকে চকলেট খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে কৌশলে তার বসতঘরে ডেকে নিয়ে যায়। এ সময় শিশুটিকে সে জোর পুর্বক ধর্ষণ করে। এ ঘটনার পর স্থানীয়রা শালিশ দরবার করে মিশাংশা করে দিবে বলে ধর্ষিতার পরিবার কোন মামলা করেনি।

এরপর সোমবার (১৩ জানুয়ারি) বিকালে তারাকান্দা থানার ওসি এই ঘটনার খবর জানতে পেরে তাৎনিক ধর্ষিতার বাড়িতে চলে যান। এসময় নির্যাতিত শিশু ও তার মাকে থানায় ডেকে নিয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। পরে মামলার দুই ঘন্টার মধ্যে ধর্ষক বদির উদ্দিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ওসি আরও জানান, মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে নির্যাতিত ভিকটিমকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও গ্রেফতারকৃত ধর্ষক বদির উদ্দিনকে পুলিশের কাছে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। আজ তাকে ময়মনসিংগের আদালতে সোপর্দ করা হবে।