জাতীয় ফুটবল দলের কোচ হলেন কাবরেরা

95

স্পোর্টস ডেস্ক : বার্সেলোনার ভার্জিনিয়ার একাডেমিতে কাজ করা সেই স্প্যানিয়ার্ডের হাতেই জাতীয় দলের দায়িত্ব তুলে দিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। হাভিয়ের কাবরেরা হচ্ছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোচ।
বাফুফে ভবনে শনিবার ন্যাশনাল টিমস কমিটির চেয়ারম্যান কাজী নাবিল আহমেদ সংবাদ সম্মেলন করে উয়েফা প্রো-লাইসেন্সধারী কাবরেরাকে ১১ মাসের জন্য নিয়োগ দেওয়ার কথা জানান।

“আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত হাভিয়ের দলের দায়িত্ব পালন করবেন। জানুয়ারি উইন্ডোতে ২৪ ও ২৭ তারিখে ইন্দোনেশিয়ায় জাতীয় দল দুটি ম্যাচ খেলবে। আগামী ১৫ বা ১৬ জানুয়ারির মধ্যে সে ঢাকায় আসবে।”
গত ২২ সেপ্টেম্বর হঠাৎ করেই চুক্তিবদ্ধ কোচ জেমি ডেকে ‘ছুটি’ দেয় বাংলাদেশ। এরপর অক্টোবরে দল সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে খেলে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ অস্কার ব্রুসনের হাত ধরে। নাবিল জানালেন, জেমির সঙ্গে সমঝোতার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে। খুব শিগগিরি এ বিষয়ে সমাধানে পৌঁছানোর আশাবাদও জানান তিনি।

“কাবরেরাকে স্থায়ীভাবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। জেমির বিষয়টি নিয়ে খুব শিগগিরি সমঝোতায় পৌঁছাতে পারব বলে আশা করছি আমরা।”
সাফের পর শ্রীলঙ্কায় প্রাইম মিনিস্টার মহিন্দা রাজাপাকসে আমন্ত্রণমূলক টুর্নামেন্টে জাতীয় দলের দায়িত্ব পালন করেন আবাহনী লিমিটেডের কোচ মারিও লেমোস। ব্রুসনের মতো তিনিও ছিলেন অন্তর্বর্তীকালীন কোচ।
জেমি ‘ছুটিতে’ থাকায় এবং ব্রুসন ও লেমোস পরে ক্লাবের দায়িত্বে ফিরে গেলে জাতীয় দল মূলত ছিল কোচহীন। সে অচলাবস্থার অবসান অবশেষে হলো কাবরেরার নিয়োগে।

৩৭ বছর বয়সী কাবরেরা ২০১৮ সালে মে থেকে অগাস্ট পর্যন্ত চার মাস বার্সা একাডেমি নর্দার্ন ভার্জিনিয়া শাখায় কাজ করেছেন। এরপর থেকে ২০২০ পর্যন্ত ছিলেন লা লিগার টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের দায়িত্বে।
কাবরেরা সবশেষ লা লিগার দল দেপোর্তিভো আলাভেসের একাডেমিতে কাজ করেছেন এক বছর চার মাস। ভারতের দল স্পোর্টিং গোয়ার টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের দায়িত্বে ছিলেন ২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত।
ফুটবল পরিসংখ্যানের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট অপ্টা স্পোর্টসে কাবরেরা কাজ করেছেন ২০০৪ থেকে ২০১০ পর্যন্ত ছয় বছর।
কাবরেরার লিংকডইন প্রোফাইল অনুযায়ী তিনি স্নাতক করেছেন বিজ্ঞাপণ ও বিপনণ বিষয়ে এবং মাস্টার্স করেছেন ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টে।