খালিয়াজুরিতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে বাবা- মা ও মেয়ের মৃত্যু

2
বিদ্যুৎ

ষ্টাফ রিপোর্টার :বিদ্যুৎ স্পৃস্টে বাবা – মা ও সন্তানের মৃত্যু হয়েছে, ঘটনাটি নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুরির গাজীপুর ইউনিয়নের লতিফপুরে।

নেত্রকোনার খালিয়াজুরিতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক দম্পতি ও তাদের সন্তানের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় তাসিয়া আক্তার নামের দেড় বছরের এক শিশু গুরুতর আহত হয়।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বুধবার দুপুরে কিতাব আলী তার বাড়িতে নবনির্মিত একটি আধাপাঁকা ঘরের দেয়ালে বৈদ্যুতিক মটরের সাহায্যে পাইপ দিয়ে পানি দিচ্ছিলেন। বেলা দেড়টার দিকে অসাবধানতাবশত বিদ্যুতের তারে তার ছোঁয়া লাগে। এতে তিনি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন।

বিষয়টি দেখে তার স্ত্রী আবেদা আক্তার ও মেয়ে পিংকি আক্তার দৌড়ে গিয়ে তাকে ছাড়াতে গেলে তিনজনই বিদ্যুতায়িত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে খালিয়াজুরি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

বুধবার (৬ অক্টোবর) বেলা পৌনে ২টার দিকে গাজীপুর ইউনিয়নের লতিফপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মৃতরা হলেন-ওই এলাকার কিতাব আলীর ছেলে আইবুল মিয়া (৪৮), তার স্ত্রী আবেদা আক্তার (৪০) ও তাদের মেয়ে পিংকি আক্তার (২২)। আহত শিশু তাসিয়া পিংকি আক্তারের মেয়ে।

চিকিৎসক প্রসেনজিৎ দাস জানান, হাসপাতালে আনার আগেই বাবা-মা ও মেয়ে মারা যান। শিশু তাসিয়াকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

গাজীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান জানান, তিনি ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন।

খালিয়াজুরি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মজিবুর রহমান জানান, খবর পাওয়ার পরপরেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

বিদ্যুৎ স্পৃস্টে বাবা – মা ও সন্তানের মৃত্যু হয়েছে, ঘটনাটি নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুরির গাজীপুর ইউনিয়নের লতিফপুরে।

নেত্রকোনার খালিয়াজুরিতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক দম্পতি ও তাদের সন্তানের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় তাসিয়া আক্তার নামের দেড় বছরের এক শিশু গুরুতর আহত হয়।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বুধবার দুপুরে কিতাব আলী তার বাড়িতে নবনির্মিত একটি আধাপাঁকা ঘরের দেয়ালে বৈদ্যুতিক মটরের সাহায্যে পাইপ দিয়ে পানি দিচ্ছিলেন। বেলা দেড়টার দিকে অসাবধানতাবশত বিদ্যুতের তারে তার ছোঁয়া লাগে। এতে তিনি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন।

বিষয়টি দেখে তার স্ত্রী আবেদা আক্তার ও মেয়ে পিংকি আক্তার দৌড়ে গিয়ে তাকে ছাড়াতে গেলে তিনজনই বিদ্যুতায়িত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে খালিয়াজুরি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

বুধবার (৬ অক্টোবর) বেলা পৌনে ২টার দিকে গাজীপুর ইউনিয়নের লতিফপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মৃতরা হলেন-ওই এলাকার কিতাব আলীর ছেলে আইবুল মিয়া (৪৮), তার স্ত্রী আবেদা আক্তার (৪০) ও তাদের মেয়ে পিংকি আক্তার (২২)। আহত শিশু তাসিয়া পিংকি আক্তারের মেয়ে।

চিকিৎসক প্রসেনজিৎ দাস জানান, হাসপাতালে আনার আগেই বাবা-মা ও মেয়ে মারা যান। শিশু তাসিয়াকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

গাজীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান জানান, তিনি ঘটনাস্থলে যাচ্ছেন।

খালিয়াজুরি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মজিবুর রহমান জানান, খবর পাওয়ার পরপরেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।