করোনায় দেশে নতুন সনাক্ত ২০৯, মৃত্যু ৭

মহামারি করোনাভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হিসেবে আরও ২০৯ জন শনাক্ত হয়েছেন। ফলে দেশে ভাইরাসটিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০১২ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৭ জনের। ফলে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৬ জনে।
মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপনকালে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।
বুলেটিন উপস্থাপনকালে করোনার বিস্তাররোধে সবাইকে বাড়িতে থাকার এবং স্বাস্থ্য বিভাগের পরামর্শ মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়।
তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে এক হাজার ৯০৫ জনের। এরমধ্যে ২০৯ জনের করোনা পজেটিভ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১২ জনে।
নাসিমা সুলতানা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে এক হাজার ৮০৪টি। এছাড়া আগের সংগ্রহ করা ছিল আরও। সবমিলে এক হাজার ৯০৫টি নমুন পরীক্ষা করা হয়েছে। এ হিসেবে এখন পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৩ হাজার ১২৮টি। এছাড়া বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৩৮৩ জন।
গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে বৈশ্বিক মহামারিতে পরিণত করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা সোয়া ১৯ লাখের বেশি। মারা গেছেন এক লাখ ১৯ হাজারেরও বেশি মানুষ। তবে সাড়ে চার লাখের মতো রোগী ইতোমধ্যে সুস্থ হয়েছেন।
গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর প্রথম দিকে কয়েকজন করে নতুন আক্রান্ত রোগীর খবর মিললেও গত ক’দিনে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে এ সংখ্যা। সবশেষ হিসাবে দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১০১২। মারা গেছেন ৪৬ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪২ জন।
প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে সাধারণ ছুটি ঘোষণার পাশাপাশি নানা পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে; যার মূলে রয়েছে মানুষে মানুষে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। মানুষকে ঘরে রাখতে রাজপথের পাশাপাশি পাড়া-মহল্লায় টহল দিচ্ছে সশস্ত্র বাহিনী, র্যাব ও পুলিশ।