করোনায় দুই বিশ্বকাপ স্থগিত

অবশেষে অনুর্ধ্ব-১৭ নারী বিশ্বকাপ আসর স্থগিত ঘোষণা করে দিয়েছে ফুটবলের আন্তর্জাতিক সংগঠন ফিফা। শুধু ভারতে অনুষ্ঠিতব্য অনুর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপই নয়, পানামা-কোস্টারিকায় অনুষ্ঠিতব্য অনুর্ধ্ব-২০ নারী ফুটবল বিশ্বকাপও স্থগিত ঘোষণা দিয়েছে ফিফা। আগামী আগস্ট-সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল টুর্নামেন্টটি।

নারীদের অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল আগামী নভেম্বরে। শনিবার (৪ এপ্রিল) ফিফা জানায়, করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বজুড়ে চলতে থাকা উদ্বেগজনক পরিস্থিতির জেরে এই প্রতিযোগিতা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

টুর্নামেন্টটি শুরু হওার কথা ছিল ২ নভেম্বর থেকে। যা চলার কথা ছিল ২১ নভেম্বর পর্যন্ত। কলকাতা, গুয়াহাটি, ভুবনেশ্বর, আহমেদাবাদ ও নবি মুম্বই- এই পাঁচ ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা নারী বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী দলের সংখ্যা ছিল ১৬টি। আয়োজক হিসেবে অংশগ্রহণকারী দেশ ছিল ভারতও। এর আগে নারীদের অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে ভারত কখনও খেলেনি। এবারই প্রথম অংশ নেওয়ার কথা ছিল দেশটির।

কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে শেষ পর্যন্ত ফিফা কনফেডারেশন্সের ওয়ার্কিং গ্রুপ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। করোনার প্রভাব খতিয়ে দেখার জন্যই এই গ্রুপ তৈরি করা হয়েছে। তারাই ফিফা কাউন্সিলকে নারীদের অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপের পাশাপাশি নারীদের অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপও স্থগিত রাখার প্রস্তাব দেয়।

অগস্ট-সেপ্টেম্বরে নারীদের অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপ হওয়ার কথা ছিল পানামা-কোস্টা রিকায়। তবে ফিফার পক্ষ থেকে এই দুই প্রতিযোগিতার পরিবর্তিত তারিখ ঘোষণা করা হয়নি।

ফিফা তাদের বিবৃতিতে বলছে, ‘নতুন তারিখ এখন পুরোপুরি অনিশ্চিত।’ অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘করোনা ভাইরাসের কারণে অন্যসব খেলাধুলার মত ফিফার এই দুটি টুর্নামেন্টও স্থগিত ঘোষণা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আমরা তাদের এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে নিয়েছি।’

করোনা ভাইরাসের কারণে ইতিমধ্যেই স্থগিত হয়ে গেছে ভারতের জনপ্রিয় ঘরোয় টুর্নামেন্ট আইপিএল। ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত ঘোষণা করা হলেও এবারের আইপিএল অনুষ্ঠিত না হওয়ার সম্ভাবনাই এখন সবচেয়ে বেশি। এছাড়া স্থগিত হয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা-ভারত সিরিজও।