এমপি লিটন হত্যায় ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড

গাইবান্ধার ক্ষমতাসীন দলের সাবেক সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলায় প্রধান আসামি আব্দুল কাদের খানসহ সাত জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।
আজ বৃহস্পতিবার গাইবান্ধা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক দিলীপ কুমার ভৌমিক এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ড পাওয়া সাত আসামির মধ্যে একজন মারা গেছেন। ফলে এখন এই মামলায় ফাঁসির আসামি ছয়জন।

হত্যা মামলায় প্রধান অভিযুক্ত কাদের খানসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

এমপি লিটন হত্যা মামলায় রাষ্ট্র ও আসামিপক্ষের ১৮ মাস যুক্তিতর্কের পর রায় দেওয়া হলো।রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে আগে থেকেই জেলা আদালত প্রাঙ্গণে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সুন্দরগঞ্জের বামনডাঙ্গার মাস্টারপাড়ার নিজ বাড়িতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন গাইবান্ধা-১ আসনের তৎকালীন সাংসদ মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন।

এ ঘটনায় পরদিন ২০১৭ সালের ১ জানুয়ারি লিটনের বড় বোন ফাহমিদা কাকলি বুলবুল বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৫-৬ জনকে আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন।

পরে পুলিশ লিটন হত্যায় ব্যবহৃত গুলিভর্তি পিস্তল উদ্ধারের ঘটনায় অস্ত্র আইনে আরেকটি মামলা করে।