উপকূলে ১-৩ ফুট উচ্চতায় ঢুকতে পারে জোয়ারের পানি

সুস্পষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে উপকূলীয় জেলাগুলোয় স্বাভাবিকের চেয়ে এক থেকে তিন ফুট অধিক উচ্চতায় বায়ুতাড়িত জোয়ারের পানি ঢুকতে পারে। এ উচ্চতায় জোয়ারের পানি প্রবেশ করতে পারে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরের নিম্নাঞ্চলগুলোয়।

বুধবার (২৬ আগস্ট) আবহাওয়া অধিদপ্তর এ তথ্য জানিয়েছে। গত কদিনের তুলনায় এদিন জোয়ারের পানি বাড়তি প্রবেশের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। গত কদিন ধরে এক থেকে দুই ফুট অধিক উচ্চতায় পানি প্রবেশের পূর্বাভাস ছিল, যা আজ এক থেকে তিন ফুট অধিক উচ্চতার পূর্বাভাস রয়েছে।

পূর্বাভাসে আরো বলা হয়, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশ উপকূলীয় এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি বর্তমানে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ-বাংলাদেশ উপকূলীয় এলাকায় অবস্থান করছে।

এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগরে মৌসুমী বায়ু সক্রিয় রয়েছে এবং গভীর সঞ্চারণশীল মেঘমালা সৃষ্টি হচ্ছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্রবন্দরের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতেও বলেছে আবহাওয়া অফিস।