ঈদ শপিং এর টাকায় প্রতিবন্ধীদের খাদ্য উপহার দিলো এসপি আহমার

মাসুদ রানা, ময়মনসিংহ ১৬ মে :
ঈদ মানে আনন্দ। ঈদ মানে খুশি। ঈদ মানে কেনাকাটা। তবে এবার কেনাকাটার বাজেট থাকলেও সে টাকা দিয়ে দরিদ্র, প্রতিবন্দী ও শিশুদের জন্য খুশি কিনে দিয়ে হাসি ফুটালেন ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামান। মানবিকতার আবেদনকে প্রাধান্য দিয়ে তিনি ১৫০ জন প্রতিবন্দী ও দরিদ্র মানুষের মাঝে ঈদ উপহার খাদ্য সামগ্রী দিয়েছেন। সেই সাথে এক ঝাঁক শিশুদের মাঝে দিয়েছেন ঘুড়ি।

আর মাত্র ৮ দিন পর ঐক্য, সৌহার্দ্য, সম্প্রীতি আর ভ্রাতৃত্বের আনন্দ নিয়ে আসছে মুসলিম উম্মার সবচাইতে বড় আনন্দের দিন পবিত্র ঈদুল ফিতর। নতুন জামা পড়ে সকল মুসলমান ভেদাভেদ ভুলে, হাতে হাত, বুকে বুক মেলানো, সবার দেহ-মন এক হওয়ার আনন্দ হলো ঈদের আনন্দ। তবে এবার প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সে আনন্দকে অনেকটা ফিকে করে দিলেও মানবিকতার ডাকে সারা দিয়ে সে আনন্দকে খুজে নিলেন ময়মনসিংহের এসপি।

শনিবার (১৫ মে) ত্রিশাল পৌর শহরের চরুইতলা এলাকার দেড় শতাধিক দরিদ্র ও প্রতিবন্ধীদের মাঝে চাল, ডাল, শেমাই, চিনি, লবণ বিতরণ করা হয়। এ সময় ওই এলাকার আরও শতাধিক শিশুদের মাঝে ঘুড়ি উপহার দেয়া হয়।

ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামানের মানবিক উপহার সামগ্রী পেয়ে অসহায় মানুষ গুলোর চোখে মুখে আনন্দের ছোয়া দেখা যায়। ঘুড়ি পেয়ে মহাখুশি ছোট ছোট কচি মুখ গুলো। এ যেন ঈদের আনন্দকে খুজে পাওয়া।

এসব প্রতিবন্ধী, দরিদ্রের মাঝে উপহার সামগ্রী তুলে দেন ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মো. শাহ কামাল আকন্দ, এসআই দেবাশীষ। এসময় উপস্থিত ছিলেন ওই এলাকার বাসিন্দা সাংবাদিক আ ন ম ফারুক ও ত্রিশাল প্রেসক্লাবের সাংবাদিকবৃন্দ।