ইয়েমেনে মন্ত্রীরা বিমানবন্দরে নামতেই হামলা, নিহত বেড়ে ২২

ইয়েমেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর অ্যাডেন বিমানবন্দরে সৌদি মদদপুষ্ট নবগঠিত মন্ত্রী পরিষদের সদস্যদের বহনকারী একটি উড়োজাহাজ অবতরণের পরপরই শক্তিশালী বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২২ জনে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৫০ জন।
প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স জানায়, শপথ নেওয়া নতুন সরকারের মন্ত্রীদের বহনকারী উড়োজাহাজটি রিয়াদ থেকে ইয়েমেনের অ্যাডেন বিমানবন্দরে অবতরণে পরপরই শক্তিশালী বিস্ফোরণ এবং গুলির শব্দ শোনা যায়।

ইয়েমেনের প্রধানমন্ত্রী মঈন আব্দুল মালিকসহ মন্ত্রিসভার সদস্যদের নিরাপদে প্রেসিডেন্ট প্যালেসে স্থানান্তর করা হয়েছে।
মন্ত্রিসভার সদস্যদের স্বাগত জানাতে বিমানের বাইরে জড়ো হয়েছিলেন অনেকে। কিন্তু বিমানবন্দর টার্মিনাল থেকে ঘন ধোঁয়া দেখার পর তারা পালিয়ে যান। এরপরেই গুলির শব্দ শোনা যায়।
গত ১৮ ডিসেম্বর দক্ষিণাঞ্চলীয় বিদ্রোহীদের সঙ্গে সমঝোতার ভিত্তিতে গঠিত হয়েছে ইয়েমেনের নতুন সরকার। সম্প্রতি সৌদি আরবে গিয়ে শপথ নেন এ সরকারের ২৪ মন্ত্রী। সেখানে তাদের শপথ পড়ান ইয়েমেনি প্রেসিডেন্ট আবেদরাব্বো মনসুর হাদি।
ইয়েমেনে ২০১৫ সাল থেকে হুতি বিদ্রোহীদের সঙ্গে সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব রাষ্ট্রগুলোর একটি জোটের লড়াই চলছে। প্রেসিডেন্ট হাদির শাসন পুনরুদ্ধার করার জন্য দেশটিতে সামরিক অভিযান চালাচ্ছে সৌদি জোট।
২০১৪ সালে ইয়েমেনের রাজধানী হুতি বিদ্রোহীরা নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার পর থেকে রিয়াদে রয়েছেন প্রেসিডেন্ট হাদি। ইয়েমেনের উত্তরাঞ্চল নিয়ন্ত্রণকারী বিদ্রোহীদের মোকাবিলা করতে দক্ষিণাঞ্চলীয় বিদ্রোহীদের সঙ্গে ক্ষমতা ভাগাভাগি করে নতুন সরকার গড়েছেন তিনি।