ইরাকে বাংলাদেশিদের সতর্ক থাকার পরামর্শ

ইরানের রেভোলিউশনারি গার্ডসের অভিজাত বাহিনী কুদ’স ফোর্সের প্রধান কাসেম সোলেইমানি ইরাকে নিহত হবার পর ইরাকের বিদ্যমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে দেশটিতে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের সতর্ক থাকার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) বাগদাদে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের হেড অব চ্যান্সারি মো. অহিদুজ্জামান লিটন এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিতে স্বাক্ষর করেন। এতে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ইরাকে বসবাসরত সব বাংলাদেশিদের বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া যত্রতত্র যাতায়াত, সভা-সমাবেশ ও গোলযোগ এড়িয়ে চলার অনুরোধ জানানো হয়।

প্রবাসীদের কনস্যুলার সেবা দিতে সপ্তাহে সাত দিন ২৪ ঘণ্টা বাংলাদেশ দূতাবাস খোলা থাকবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার পর শুক্রবার বাগদাদের মার্কিন দূতাবাস ইরাকে অবস্থানরত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের অবিলম্বে দেশটি ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ইরানের কুদস ফোর্স নেতাকে হত্যার পর পাল্টা আঘাতের আশঙ্কায় এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে মনেকরা হচ্ছে।

ইরানের রেভোলিউশনারি গার্ডসের অভিজাত বাহিনী কুদ’স ফোর্সের প্রধান কাসেম সোলেইমানি ইরাকে নিহত হয়েছেন। পেন্টাগন নিশ্চিত করেছে যে তাকে ‘মার্কিন প্রেসিডেন্টের নির্দেশনা অনুযায়ী হত্যা করা হয়েছে’।

ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানিয়েছে বাগদাদ বিমানবন্দরের কাছে হওয়া এক হামলায় মারা যাওয়া বেশ কয়েকজনের মধ্যে কাসেম সোলেইমানি রয়েছেন।

ইরানের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তিদের তালিকায় শীর্ষস্থানে ছিলেন কাসিম সোলাইমানি। তার সবচেয়ে বড় পরিচয় তিনি কুদস সেনাবাহিনীর প্রধান ছিলেন। এছাড়াও তিনি মধ্যপ্রাচ্যে দেশের বিভিন্ন কার্যক্রমের মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে বিশ্বব্যাপী পরিচিত। দেশের শান্তি ও যুদ্ধের সময়গুলোতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মতো দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি।

সিরিয়ায় বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাশার আল-আসাদের পক্ষে যুদ্ধ, ইরাকে ইরানপন্থীদের উত্থান, ইসলামিক স্টেট গ্রুপের বিরুদ্ধে লড়াই এবং এর বাইরেও অনেক লড়াইয়ে তিনি মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে ছিলেন।