ইউক্রেনকে বিমান বিধ্বংসী ট্যাঙ্ক সরবরাহের ঘোষণা জার্মানির

আধুনিক অস্ত্র পাঠানোর জন্য জার্মানিকে আহ্বান জানিয়েছে ইউক্রেন। সম্প্রতি জার্মান সরকার ইউক্রেনকে প্রথমবারের মতো বিমান বিধ্বংসী ট্যাঙ্ক সরবরাহের ঘোষণা দিয়েছে। তারপরেই ইউক্রেনের প থেকে দেশটির কাছে আধুনিক অস্ত্র চাওয়া হলো।

কয়েকদিন আগেই জার্মানির প্রতিরামন্ত্রী ক্রিস্টিন ল্যামব্রেচট ঘোষণা দেন যে, তার দেশ ইউক্রেনকে প্রায় ৫০টি বিমান-বিধ্বংসী ট্যাঙ্ক পাঠাচ্ছে। এছাড়া এক হাজার ভারি অস্ত্র, ৫০০ স্টিংগার মিসাইল, প্রায় ৩ হাজার স্ট্রেলা মিসাইল এবং বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদও পাঠাবে বার্লিন।

ষাটের দশকে নির্মিত গেপার্ড ট্যাঙ্কটি সংস্কার করেছে জার্মানি। সেটাও পাঠানোর কথা রয়েছে। এই ট্যাঙ্কটি সাড়ে পাঁচশ’ কিলোমিটার পর্যন্ত হামলা চালাতে সম বলে জানা গেছে।

কিন্তু জার্মানিতে নিযুক্ত ইউক্রেনের রাষ্ট্রদূত অ্যান্ড্রি মেলনিক বলেন, গেপার্ড বিমান বিধ্বংসী ট্যাঙ্ক প্রায় ৪০ বছরের পুরোনো। তিনি বলেন, রাশিয়াকে হারাতে আমাদের আরও বেশি আধুনিক অস্ত্রের প্রয়োজন।

এদিকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, তার দেশে অনর্থক আক্রমণ করে রাশিয়া নিজেদের ২৩ হাজারের বেশি সেনা সদস্যকে হারিয়েছে।

সম্প্রতি এক ভিডিওতে জেলেনস্কি বলেন, রাশিয়ার এক হাজারের বেশি ট্যাঙ্ক ধ্বংস করেছে ইউক্রেন। এছাড়া দেশটির দুইশ প্লেন এবং প্রায় আড়াই হাজার সামরিক যান এই সংঘাতে ধ্বংস হয়েছে।

তিনি বলেন, সামনের দিনগুলোতে আরও কয়েক হাজার রুশ সেনা প্রাণ হারাবেন এবং আরও কয়েক হাজার সেনা সদস্য আহত হবেন।