আফগানিস্তানে মার্কিন ড্রোন হামলায় ‘আইএস জঙ্গি’ নিহত

পূর্ব আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলায় ইসলামিক স্টেট (আইএস)-এর এক সদস্য নিহত হয়েছে। সামরিক সূত্রের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে বিবিসি ও আল জাজিরা।
এক বিবৃতিতে ইউএস সেন্ট্রাল কমান্ডের ক্যাপ্টেন বিল আরবান বলেন, নানগাহার প্রদেশের আইএস-কে গ্রুপের এক ‘পরিকল্পনাকারী’কে লক্ষ্য করে এ হামলা পরিচালিত হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার কাবুল বিমানবন্দরে হামলার দায় স্বীকার করে আইএস-কে। ওই হামলায় ১৭০ এর বেশি মানুষ মারা যায়। যাদের মধ্যে ১৩ মার্কিন সেনা রয়েছে।
বিবৃতিতে আরও জানানো হয়, ‘প্রাথমিক লক্ষণগুলো’ বলেছে ওই হামলায় আইএসের লক্ষ্যবস্তু নিহত হয়েছে এবং কোন বেসামরিক মানুষ মারা যায়নি।
গত মে মাস থেকে ২০ বছরের যুদ্ধক্ষেত্র আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করছে আমেরিকা ও ন্যাটো বাহিনী। যা ৩১ আগস্টের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা।

সৈন্য সরতে শুরু করলে তালেবানরা একের পর এক অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়া শুরু করে। গত ১৫ আগস্ট যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা পূর্বাভাসকে ভুল প্রমাণ করে তারা কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেয়। বর্তমানে বিদেশি নাগরিক ও তাদের স্থানীয় সহযোগীদের সরিয়ে নেওয়ার কাজ চলছে।
এর মাঝে যুক্তরাষ্ট্র দুই দফা আইএস হামলার আশঙ্কা প্রকাশ করে। সেই আশঙ্কাই সত্যি হয় বৃহস্পতিবার।